পাতা:ব্যক্তিত্ব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


उवां द्रौ ? এই বিশাল বিশ্বের মুখোমুখি আমরা রয়েছি এবং এর সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক বহুমুখী। এর একটি হল আমাদের জীবনধারণ, ভূমিকৰ্ষণ, আহারসংগ্রহ, বস্ত্রপরিধান এবং প্রকৃতি থেকে নানা উপাদান সংগ্রহের সম্পর্ক। যা আমাদেব প্রয়োজন মেটাবে এমন-সব বস্তু আমরা সর্বদাই তৈরি করছি আর এই-সব প্রয়োজন মেটাবার প্রয়াসে প্রকৃতির সংস্পর্শে আমরা নিয়তই আসছি । এইভাবে ক্ষুধা, তৃষ্ণা ও আমাদের সকল শারীবিক প্রয়োজনের মধ্য দিয়ে আমরা সর্বদাই এই বিশাল বিশ্বেব সংস্পর্শে আসছি। এ ছাড়া রয়েছে আমাদের মন ; আর মন চায় তার খোরাক। মনেবও রয়েছে তার নিজস্ব প্রয়োজন। সে নানা বস্তুর মধ্যে যুক্তিকে খুজবেই। মনকে তথ্যের সংখ্যাবহুলতার সম্মুখীন হতে হয়। যখন নানা বস্তুর বিষম সমাবেশে মন ঐক্যবিধায়ক সূত্রটি খুজে পায় না তখন সে বিভ্রান্ত হয়ে পড়ে। মানুষের মনের গঠনই এই রকম যে সে কেবল তথ্যানুসন্ধান করে না, সেই সঙ্গে নিছক সংখ্যা ও পরিমাণের বোঝা লঘু হয় এমন কিছু সূত্র খুজে বার সে করবেই। (། ཨ་ ছাড়াও আমাদের মধ্যে রয়েছে আর এক মানুষ— সে শারীরিক মানুষ নয, সে ব্যক্তিগত মানুষ ) এই শেষোক্ত মানুষটির নানা পছন্দ-অপছন্দ আছে, এবং সে তার ভালোবাসার চাহিদা মেটাবার জন্ত যা হোক কিছু খুজে বার করতে চায়। আমরা যেখানে শরীর ও মন উভয়ের চাহিদার উর্ধ্বে, স্বার্থ ও প্রয়োজনের উর্ধ্বে, যেখানে আমবা সব রকমের চাহিদা থেকে মুক্ত, সেখানেই এই ব্যক্তিগত মানুষের দেখা পাওয়া যায়। মানুষের মধ্যে সর্বোচ্চ