পাতা:ব্যক্তিত্ব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ক্ষেত্রে আক্রমণাত্মক মনোভাব পোষণ করে, যারা তাদের প্রভুর শিক্ষার সত্য অর্থে বিশ্বাস হারিয়েছে যে নম্র বিনীত মানুষই পৃথিবীকে পাবে, তারা জীবনের পরবর্তী প্রজন্মে পরাভূত হবে। প্রাচীন যুগে, প্রাগৈতিহাসিক কালে ম্যামথ ও ডাইনোসরদেব মতো বিশালকায় প্রাণীদের ভাগ্যে যা ঘটেছিল, তাবই পুনরাবৃত্তি হবে । তারা পৃথিবীতে তাদের উত্তরাধিকার হারিয়েছে। প্রচণ্ড প্রয়াসের উপযোগী দৈত্যেব মতো পেশী তাদেব ছিল, কিন্তু পেশীশক্তিতে তুর্বলতর ও অনেক কম আয়তনবিশিষ্ট প্রাণীদের কাছে তাদের হেরে যেতে হয়েছিল । আর ভবিষ্যৎ সভ্যতাক্ষেত্রেও তুর্বলতর প্রাণী নারী— অন্ততঃ বাহ্যিক রূপে যে দুর্বল, পেশীশক্তিতে যে হীনতব ও যে সর্বদাই বিশালকায় প্রাণী পুরুষের ছায়ায় পড়ে আছে— সেই নারী তার যোগ্য ভূমিকা খুজে পাবে, এবং ঐ-সব বিশালকায় প্রাণীদেব পথ ছেড়ে দিতে হবে ।