পাতা:ব্যক্তিত্ব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সঞ্চিত সম্পদ ব্যবহারের ক্ষেত্রে উদার করে তোলে। যখন আমরা ধন সঞ্চয় করি, তখন আমাদের প্রতিটি পয়সার হিসাব করতে হয় ; আমরা ঠিকমত যুক্তি দেখাই এবং সতর্কভাবে কাজ করি। কিন্তু যখন আমরা আমাদের সম্পদশীলতার পরিচয় দিতে উদ্যত হই, মনে হয় তখন আমরা সীমার সকল বাধন অতিক্রম করে যাই । বস্তুতঃপক্ষে, আমরা সম্পদশীলতা বলতে যা বোঝাই, তা সম্পূর্ণ প্রকাশ করার মতো সম্পদ আমাদের কারুরই নেই। যখন কোনো শত্রুর আক্রমণ থেকে আমরা নিজেদের জীবন বাচাতে চেষ্টা করি, তখন আমাদের চলাফেরা সম্পর্কে সতর্ক হই । কিন্তু যখন আমরা ব্যক্তিগত শৌর্য প্রকাশের তাড়নায় অস্থির হয়ে উঠি, তখন আমরা স্বেচ্ছায় বিপদের মধ্যে যাই এবং মৃত্যু-আশঙ্কা পর্যন্ত যেতে রাজী থাকি। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে খরচের বেলায় আমরা সতর্ক থাকি, কিন্তু উৎসবানুষ্ঠানে যখন আমাদের আনন্দ প্রকাশ করি, তখন আমরা বেহিসেবী হয়ে পড়ি, এমন-কি আমাদের সাধ্যের অতিরিক্ত খরচ করতে প্রস্তুত থাকি। কারণ যখন আমরা আমাদের ব্যক্তিত্ব সম্পর্কে গভীরভাবে সচেতন থাকি, তখন আমরা বাস্তব তথ্যের শাসনকে অগ্রাহ্য করতে প্রস্তুত হই । যার সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক বিবেচনার সম্পর্ক, তার সঙ্গে ব্যবহারে আমরা সতর্ক থাকি । কিন্তু যাদের আমরা ভালোবাসি তাদের সঙ্গে ব্যবহারে আমাদের যথেষ্ট বাধা-ধরা সতর্কতা থাকে ব’লে মনে করি না । কবি র্তাব প্রিয়তমার সম্পর্কে বলেছেন : “আমার মনে হয় আমার অস্তিত্বের সূচনা থেকে আমি তোমার সৌন্দর্যের দিকে একদৃষ্টিতে তাকিয়ে আছি, সংখ্যাতীত যুগ ধরে আমার বাহু-বন্ধনের মধ্যে তোমাকে রেখেছি, তথাপি abr