পাতা:ব্যক্তিত্ব - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৯৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ব্যবস্থা । যে বয়স্ক মানুষ বিদ্যালয়ের বিশেষ প্রয়োজন সম্পর্কে অবহিত ও সে-কারণে জীবন থেকে সম্পর্কচ্যুতির মূল্যে শিক্ষা গ্রহণে প্রস্তুত, তারই উপযোগী এই শিক্ষালয় । কিন্তু শিশুরা জীবনের প্রেমে আবদ্ধ, আর তা তাদের প্রথম প্রেম । জীবনের সব রঙ ও গতি শিশুদের ব্যগ্র মনোযোগ আকর্ষণ করে। এই প্রেমকে রুদ্ধ করা কি আমাদের পক্ষে উচিত হচ্ছে ? শিশুরা সন্ন্যাসী হয়ে জন্মায় না । জ্ঞানলাভের জন্য এখুনি মঠের শৃঙ্খলাবদ্ধ জীবনে প্রবেশের যোগ্যতা শিশুদের নেই। গোড়ায় প্রেমের জীবনের মধ্য দিয়ে শিশুরা জ্ঞান সঞ্চয় করবে, ও তার পরে জ্ঞানসংগ্রহের জন্য তারা জীবন ত্যাগ করবে, এবং তার পরে আবার পূর্ণ জ্ঞানসমৃদ্ধ জীবনে তারা ফিরে আসবে। কিন্তু সমাজ তার বিশেষ ছাচের উপযোগী করে মানুষের মনকে ঢেলে সাজার বন্দোবস্ত করে । এই বন্দোবস্ত এত ঘনসংবদ্ধভাবে করা হয় যে এর মধ্য দিয়ে প্রকৃতিকে আনবার জন্য ফাক খুজে পাওয়া যায় না। যদি কেউ এই ব্যবস্থা থেকে খানিকটা স্বাধীনতা লাভের, এমন-কি নিজের আত্মাকে রক্ষার চেষ্টা করে, তবে শেষ বিন্দু পর্যন্ত তাকে ধারাবাহিক শাস্তি পেতে হয়। সুতরাং সত্যের উপলব্ধি এক ব্যাপার, আর যখন প্রচলিত ব্যবস্থার স্রোত আপনার বিপক্ষে তখন সত্যকে কর্মে রূপদান আর-এক ব্যাপার । এই কারণে যখন আমি আমার পুত্রকে শিক্ষাদানের সমস্যার সম্মুখীন হলাম, তখন এর কার্যকরী সমাধান খুজে পাই নি। প্রথম কাজ আমি যা করেছিলাম, তা হচ্ছে— তাকে শহরের পরিবেশ থেকে সরিয়ে গ্রামে নিয়ে গিয়েছিলাম এবং আধুনিক কালে যতদূর সম্ভব ততদূর আদিম প্রাথমিক জীবনের স্বাধীনতা তাকে দিয়েছিলাম । সেখানে তার সঙ্গী ছিল ভয়ংকরী নদী । বয়স্কদের আশঙ্কার শাসনমুক্ত হয়ে Σ' ο 3