পাতা:ব্যঙ্গকৌতুক - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অরসিকের স্বর্গপ্রাপ্তি (? & মিলবে কিন্তু ব্রাহ্মণ কায়স্থের ঘরে অমন বাহন আর পাবেন না । এই নতুন গঙ্গার ধারে তার স্নেহের ভগীরথও যে বেশি দিন টিকবে কোনো ডাক্তারেই এমন আশা দেয় না। সত্যযুগের নামটার জন্যে মায়া হয় বটে, কিন্তু আমি বেশ ক’রে ভেবে দেখেচি,দাদা, এই কলিযুগের প্রাণটার মায়াও ছাড়তে পারিনে ! তাই স্থির করেচি পুষ্করিণীটি তোমাকেই ফিরিয়ে দেবে, কিন্তু গঙ্গা-মাতাকে এখান থেকে একটু দূরে বসৎ ক’রতে হবে । অরসিকের স্বগপ্রাপ্তি ৬/গোকুলনাথ দত্ত । ইন্দ্রলোক । গোকুলনাথ । (স্বগত) আমি দেখুচি স্বর্গটি স্বাস্থ্যের পক্ষে দিব্য জায়গা হ’য়েচে । সে সম্বন্ধে প্রশংসা ন ক’রে থাক যায় না । অনেক উচ্চে থাকার দরুণ অক্সিজেন বাষ্পটি বেশ বিশুদ্ধ পাওয়া যায়, এবং রাত্রিকাল না থাকাতে নন্দনবনের তরুলতাগুলি কাৰ্ব্বনিক অ্যাসিড, গ্যাস পরিত্যাগ করবার সময় পায় না, হাওয়াটি বেশ পরিষ্কার । এদিকে ধুলো নেই, ত’তে ক’রে একেবারে রোগের বীজই নষ্ট হ’য়েচে । কিন্তু এখানে বিদ্যাচর্চার যে রকম অবহেলা দেখুচি তা”তে আমি সন্দেহ করি ধুলোর রোগের বীজ উড়ে বেড়ায় এ সংবাদ এখনো এদের কানে এসে পৌছেচে কি না । এরা সেই যে এক সামবেদের গাথা নিয়ে প’ড়েচেন এর বেশি আর ইন্টেলেকচুয়াল মুভমেণ্ট অগ্রসর হ’লে না। পৃথিবী দ্রুতবেগে চ'ল্‌চে কিন্তু স্বর্গ যেমন ছিল তেমনিই রয়েচে, কনসার্ভেটিভ, যতোদূর হতে হয় ! ( বৃহস্পতির প্রতি ) আচ্ছা, পণ্ডিত মশায়, ঐ যে সামবেদের গান হ’চ্চে, আপনার তো বসে ব’সে মুগ্ধ হ’য়ে শুনচেন, কিন্তু কোন সময়ে