পাতা:ব্যঙ্গকৌতুক - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৭৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


이 2 ব্যঙ্গকৌতুক এ আর ওঁর গায়ে সইলে না । ঘুর ঘুরু ক’রে বেড়াচ্চে দেখে। ন ! এতোগুলো পুরুষ মানুষের সামনে লজ্জাও নেই ! মাগী এবার পাড়ায় গিয়ে কতো কানাযুষোই ক’রবে ! উনিও বড়ো কসুর করেন নি! কাৰ্ত্তিক ঠাকুরটিকে নিয়ে যে রকম নিলজপন ক’রেচে আমি দেখে লজ্জায় ম’রে যাই আর কি ! কাত্তিক কোথায় নুকোবে ভেবে পায় না। এই তে৷ চেহারা—ওই নিয়ে এতো ভঙ্গীও করে ! মাগো, মাগে, মাগো ! ( প্রকাশ্বে ) অমর মাগী । চাদের সামনে দিয়ে অমন বেহায়ার মতে আনাগোন। ক'বুচিস্ কেন ? যেন সাপ খেলিয়ে বেড়াচ্চে ! কান্তিকের ওখানে ঠাই হ’লোন না কি ? (স্বরসভার মধ্যে মনসা ও শীতলার গ্রাম্য ভাষায় তুমুল কলহ ) । ইন্দ্র । ( শশব্যস্ত इङ्गे একবার মনসা ও একবার শীতলার প্রতি । ক্রোধ সম্বরণ করে ! ক্রোধ সম্বরণ করে । অয়ি অস্থয়তাম্রলোচনে, আয়ি গলদ্বেণীবন্ধে, অয়ি বিগলিতদুকুলবসনে ! অয়ি কোকিলজিতকুজিতে, তারতর সপ্তম স্বরকে পঞ্চমস্বরে নম্র করিয়া আনো ! অয়ি কোপনে— ঘেটু (উত্তরীয় ধরিয়া ইন্দ্রকে আসনে বসাইয়া ) তুমি এতে ব্যস্ত হও কেন দাদা ! ওদের এমন রোজ হ’য়ে থাকে! থাকতে ওলাবিবি, তাহলে আরো জমতো ! তা’র কী খাবার গোল হ’য়েচে তাই সে শচীর সঙ্গে ঝগড় করতে গেচে । - ইন্দ্র । ( ব্যাকুলভাবে ) হা সুরেন্দ্রবক্ষোবিহারিণী দেবী পোলোমী । (মনসার দ্রুতবেগে সভা ত্যাগ, এবং শীতলার পুনশ্চ চন্দ্রের পাশ্বে উপবেশন ) বীণাপাণির প্রবেশ বীণ। দেবরাজ, কর্কশ কোলাহলে আমার দেববীণার স্বরস্থলন হইতেছে, আমার কমলবন শূন্তপ্রায়, আমি দেবলোক হইতে বিদায় গ্রহণ করিলাম । ( প্রস্থান )