পাতা:ব্যঙ্গকৌতুক - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


సెరి ব্যঙ্গকৌতুক আশু। কার বিবাহের কথা ! শ্যামা । তুমি আমাকে অবাক ক’রলে বাপু ! এতোক্ষণ কথাবাৰ্ত্তার পর জিজ্ঞাসা ক’রচে। কার বিবাহের কথা ! তোমারি তো বিবাহের কথা হ’চ্চিলো—কেবল পানপাত্রের কথা শুনে তুমি চমকে উঠলে । তা পানপাত্র না হয় না-ই হ’লে । আশু । ( হতবুদ্ধিভাবে ) ও, হা, তা বুঝেচি, তাই হ’চ্চিলে বটে ! (স্বগত ) মস্ত একটা কী ভূল হ’য়ে গেচে । না বুঝে একেবারে জড়িয়ে প’ড়েচি । কী করা যায় । ( প্রকাশ্যে ) কিন্তু এতে তাড়াতাড়ি কিসের, আর এক দিন এসব কথা খোলস ক’রে আলোচনা করা যাবে ! কী বলেন ? f শ্যাম । খোলসার আর কী বাকি রেখেচে বাব| আর-এক-দিন এর চেয়ে তার কতো খোলস হবে । তাড়াতাড়ি তো তুমিই ক’রছিলে । আসচে রবিবারেই তুমি দিনস্থির করতে চেয়েছিলে । আশু । তা চেয়েছিলুম বটে। শ্যাম । তুমি দেখাশুনা করতে চাইলে ব’লেই আমি মেয়েকে তোমার সাক্ষাতে বের করলুম ; তা’র গানও শুনলে—এখন পানপাত্রের কথা শুনেই যদি বেঁকে দাড়াও, তা হ’লে তো আমার আর মুখ দেখাবার জো থাকবে না । তোমাকেই বা লোকে কী ব’লবে বাবা ! ভদ্রলোকের মেয়ের সঙ্গে এমন ব্যবহার কি ভালো ? অামার নিরু তোমার কাছে কী দোষ ক’রেছিলো যে ( ক্ৰন্দন )— নিরুপমার দ্রুত প্রবেশ নিরুপমা । মা, কী হ’য়েচে মা, অমন ক’রে কাদচে। কেন ? আশু । ( স্বগত ) কী সৰ্ব্বনাশ ! আমাকে এরা সবাই কী মনে ক’রবেন না জানি ! ( প্রকাশ্যে) কিছু হয় নি, আমি সমস্তই ঠিক ক’রে