পাতা:ব্যবসায়ে বাঙালী.djvu/১৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


»❖ው ব্যবসায়ে বাঙালী फेरधांtभं २8 °ब्रभभाग्न जरूर्शऊ शंदफ़ थांनांग्र, ब्रांब वाशंभूब्र ८षरदछनांष বল্লভ বাংলার রাজবন্দীদের ৮৯ শত বিঘা জমী বন্দোবস্ত দিতেছেন । যদি রাজবন্দীরা বৈজ্ঞানিক প্রণালীতে এই সমস্ত জমীর চাষ করিতে সক্ষম হন, তবে হয়তো উহাতে র্তাহাজের জীবিকা-নিৰ্ব্বাহের সংস্থান হইতে পারে। কিন্তু বৈজ্ঞানিক প্রণালী ছাড়া সাধারণ চাষীর মত চাষ করিলে উহাতে কোন ফল হইবে না। গবর্ণমেণ্টের ‘পাবলিক ইন্‌ভান্ধীজ? বিভাগ অনেক বেকার লোককে, অনেক প্রকার শিল্পশিক্ষা দিয়া বলিয়া থাকেন যে, ইহাতে মাত্র ৪৫ শত টাকা মূলধন ফেলিয়া এই সকল ব্যবসায়ে মাসিক একশত টাকার উপর লাভ হইবে। উহা একেবারেই কল্পনায় আকাশ-কুসুম রচনা। সাবান, ছাতার বঁাট, কাতাড়ি, পাপস প্রস্তুত শিক্ষা করিয়া ৪৫ শত টাকা মূলধনে, মাসিক একশত টাকার উপর আয় হইলে, বাংলায় আর বেকার-সমস্তার নাম-গন্ধও থাকিত না। বাংলাদেশের লোকের বর্তমানে মাথায় তেল জুটিতেছে না, সেজন্যই বোধ হয় বেকারদের সাবান-প্রস্তুত শিক্ষা দিয়া, তেলের সমস্কা সাবানে সমাধান করিবার চেষ্ট হইতেছে। পাবলিকু ইনডাক্টজের ঐ সমস্ত শিক্ষায় মাসে ৮৷১০২ টাকার বেশী আয় হইতে পারে বলিয়া বিশ্বাস করা শক্ত । তাহাও যে সব জায়গায় সম্ভব হইবে, তা নয় । মফঃস্বলের যে-সমস্ত স্থানে অধিক লোকের বাস, একমাত্র তথায় কারখানা স্থাপন করিলেই ৮১০২ টাকা আয় হইতে পারে। =सांन्नििलट्न्वञ्त्र-८च्चन्विन्वतः। -- পূৰ্ব্ববঙ্গের বহুস্থানে প্রচুর পরিমাণে নারিকেল-ছোবরা পাওয়া যায়। ঐ সমস্ত ছোবরা দ্বারা গৃহস্থেরা রান্না করে। পাবলিক ইনডাষ্ট্রীজের । তত্ত্বাবধানে বরং যদি কাতাদড়ি ও পাপস প্রস্তুত প্রণালী শিক্ষা করিয়া, বেকারগণ পূর্ববঙ্গের ঐ সমস্ত স্থানে গিয়া বসে, মাসে e॥৭২ টাকা আয়