পাতা:ব্যবসায়ে বাঙালী.djvu/১৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\う ব্যবসায়ে বাঙালী স্তার রাজেন্দ্রনাথ মুখার্জি সামান্ত অবস্থা হইতে ব্যবসা আরম্ভ করিয়া ব্যবসাক্ষেত্রে যে উন্নতি ও সুনাম অর্জন করিয়া গিয়াছেন, তাহ বাঙালী জাতির পক্ষে একটা গৌরবময় দৃষ্টান্ত । বেঙ্গল কেমিক্যাগের প্রতিষ্ঠাতা স্বনামধন্য আচাৰ্য্য প্রফুল্ল চন্দ্র রায়। এই প্রতিষ্ঠানের যশ আজ সৰ্ব্বত্র ছড়াইয়া পড়িয়াছে—বাঙালী মাত্রেই ইহার গৌরবে গৌরবান্বিত । বেঙ্গল কেমিক্যালের জিনিষের চাহিদা এখন ভারতের সর্বত্র । ইহার দ্বারা দেশের বেকার সমস্যার যে আংশিক সমধান হইয়াছে, তাহ বোধ হয় কেহ অস্বীকার করিতে পারেন না। এই বেঙ্গল কেমিক্যালের সুনাম ও ক্রমোন্নতি লক্ষ্য করিয়া, অ-বাঙালীর দল ইহার শেয়ার খরিদ করিয়া, প্রতিষ্ঠানটিকে অধিকার করিবার চেষ্টায় ছিল । কতক "শেয়ার’ আজ অ-বাঙালীর হাতে। বাংলা দেশের ধনি-সম্প্রদায় কোন অনিশ্চিত ব্যবসার ঝঞ্চাটে না গিয়াও বাংলার এই জাতীয় প্রতিষ্ঠানের শেয়ার গুলি কিনিয়া রাখিতে পারিতেন । তাহাতে বাংলার জাতীয় প্রতিষ্ঠানের যেমন যথেষ্ট সাহায্য হইত, তেমনি হিসাব করিলে দেখিতে পাইতেন, পুৰ্ব্বপুরুষের সঞ্চিত কোম্পানির কাগজের দ্বারা যে মুদ আসে, এই জাতীয় উন্নতিশীল প্রতিষ্ঠানের শেয়ার হইতে লন্ধ ডিভিডেগু ( Dividend ) সে স্বদের হার অপেক্ষ কোন অংশে কম হয় না । আবার দেখিতে পাই, গরীবের ছেলের যেমন উদরান্ন সংগ্রহের ধাধায় চাকুরীর জন্য ছুটাছুটি করিতেছে, অনেক ধনি-সন্তান ও তেমনি বিদেশী কোম্পানির অফিসে টাকা জম! রাখিয়া চাকুরীর উচ্ছিষ্টের জন্য লালায়িত হইয়া উঠিতেছেন। যদি এই সমস্ত ধনি-সন্তান চাকুরীর দিকে না ঝু কিয়া এই সমস্ত টাকাকে মূলধন করিয়া কোন ব্যবসায়ে লিপ্ত হইতেন, তাহাতে একদিকে নিজেরাও যেমন লাভবান হইতে পারিতেন, অন্যদিকে দশজন গরিব বেকারও প্রতিপালিত হইত। বস্তুতঃ চাকুরী করাটা যেন বাঙালীর মজ্জাগত