পাতা:ব্যবসায়ে বাঙালী.djvu/১৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ব্যবসায়ে বাঙালী b83 সকল প্রদেশের লোকেরই যখন নিজ নিজ প্রদেশের প্রতি এত আসক্তি, বাঙালীর তাহ থাকিবে না কেন ? নিজের তুলার চাষ করিয়া তাহ হইতে নিজেরা বাড়ীতে সূতা কাটিয়া, ঐ স্থতায় কাপড় প্রস্তুত করিয়া পরিতে না পারিলে খন্দরেও মনের তৃপ্তি হয় না। বাজারে যে সমস্ত খদর বিক্রয় হয়, তাহা দেশী কি বিদেশী বুঝা যায় না। কাজেই বেশী দামে বাজারের খন্ধর কিনিয়া দেশের প্রতি সহানুভূতি প্রদর্শন করা আমিও সমর্থন করি না। যাহা সহজ ও কাৰ্য্যকরী এবং বরাবর যাহার স্থায়িত্ব রক্ষা করা সম্ভব, তাহ লইয়াই মাতামাতি করা শোভন, কেবল হুজুগে মাতিয়া কিছু করা ঠিক নহে । অতিরিক্ত বাড়াবাড়ির ফলেই এ যাবৎ বাংলার কোন আন্দোলন স্থায়ী ও সফল হয় নাই । অভাবের তাড়নায় লোক এখন সস্তায় জীবনযাত্রার দিকে ঝুঁকিয়াছে। দেশের শিক্ষিত যুবক-সম্প্রদায় যদি সরল সহজ জীবনযাত্রার সপক্ষে প্রচারকার্য্য করে তাহা হইলে দেশের অর্থ ও স্বাস্থ্য উভয়ই বঁচিয়া যায়। বাঙালী ‘অসাধু, বাঙালী ফাকিদার, এই সব বিশেষণেই বাঙালী আজ অভিহিত হইতেছে। ইহার কারণ কি ? কারণ "অভাব’। ‘অভাবে স্বভাব নষ্ট, অভাবের তাড়নায় সাধুও অসাধু হইয়া পড়ে। জীবনযাত্রা যদি অনাড়ম্বর হয়, অভাবও স্বভাবতঃ অল্প হইবে, মামুষের মনের হীন প্রবৃত্তিগুলিও সেই পরিমাণে কমিয়া যাইবে। - বিবাহ-ব্যাপারেও বাঙালীর বড় ব্যয়-বাহুল্য । একে ত পাীের অভিভাবককে বহুকষ্টে সাধ্যাতীত, বরপণ দিতে হয় ; তৎপরে বরের বহু আত্মীয়-বন্ধুবান্ধবদের ঠেলায় পাত্ৰীপক্ষের অবস্থা শোচনীয় হইয়া দাড়ায়। শিক্ষিত যুবক-সম্প্রদায় যদি একটু উদারত-সম্পন্ন হন, ইহার প্রতিকার হইতে পারে।