পাতা:ব্যবসায়ে বাঙালী.djvu/১৬৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Ֆ4Փ ব্যবসায়ে বাঙালী দেনার ভয় করে, কিন্তু বড়লোকেরা উহা গ্রাহ করে না। @ আবার অনেক সময় দেখা যায় যে, ঐ সমস্ত দেন পরিশোধের সময় কেহ কেহ বলিয়া থাকেন,—অমুক দিন অমুক জিনিসটা বড় খারাপ হইয়াছে, অমুক জিনিস ওজনে কম হইয়াছে, অমুক জিনিসের দাম খুব বেশী ধরিয়াছেন ইত্যাদি। এইরূপ নানাপ্রকার ওজর-আপত্তি জানাইয়া পাওনাদারের প্রাপ্য টাকা হইতে কিছু কিছু কাটিয়া লইয়া থাকেন । ব্যবসায়ে বৰ্ত্তমান প্রতিযোগিতার দিনে পল্লীর ঐ সমস্ত বেকার ক্ষুদে ব্যবসায়ীরা ধার বাকীর ঠেলায় অস্থির হইয়া প্রায়ই কারবার নষ্ট করিয়া ফেলে । সুতরাং এখানেও জনসাধারণের সহানুভূতি চাই। পরস্পর পরম্পরের সহায়তায় অগ্রসর না হইলে সমাজই টিকিতে পারে না, ব্যবসাতো সামান্য কথা । এই কথাটা ভাল করিয়া বুঝিবার সময় আসিয়াছে। কবি কামিনী রায়ের কবিতায় এই ভাবটিই বড় মধুর পরিস্ফুট হুইয়াছে— “আপনারে লয়ে বিব্রত রহিতে আসে নাই কেহ অবনী পরে, সকলের তরে সকলে আমরা, প্রত্যেকে আমরা পরের তরে ।”