পাতা:ব্যবসায়ে বাঙালী.djvu/৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


o/* প্রকাশ করিব। একটুখানি চেষ্টাও করিয়াছিলাম। কিন্তু দৈনিক কাগজে রাশি রাশি বিজ্ঞাপনের স্থান দিয়া যে জায়গাটুকু বাচে, তাহাতে “রয়টার” “এসোসিয়েটেড প্রেস”—ইহাদের খবর ছাপিতেই কুলায় না। কাজেই সম্পাদক মহাশয়েরা বলেন,—“কাটিয়া ছাটিয়া একটু ছোট করিয়া দিন।” কিন্তু কাটিতে ছাটিতে গেলে অনেক কথাই অকথিত থাকিয়া যায়। যাক, ‘যুগান্তরে ব্যবসায়ে বাঙালীর পথ-নিৰ্দেশ' নামীয় আমার এই পুস্তকের প্রবন্ধটি একদিন প্রকাশিত হয়,—সংক্ষিপ্ত আকারেই অবশ্য। প্রকাশিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এক সম্প্রদায় পাঠকের নিকট প্রবন্ধটি এত সমাদর লাভ করে যে, অনেকে স্বতঃপ্রবৃত্ত হইয়া আমার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন, এবং বহু যুবক-বন্ধু পত্রালাপ দ্বারা আমার পরিকল্পনা আরও বিস্তৃতভাবে পুস্তকাকারে প্রকাশ করিতে অনুরোধ জানান। সেই অনুরোধেরই ফল এই পুস্তক—এই অনধিকার-চর্চা ! আমার এ পুস্তক সাহিত্য নয়, সাহিত্যের সরসতাও ইহাতে নাই। আমি ব্যবসায়ী মানুষ—ব্যবসায়ের কথাই বলিয়াছি ; উদ্দেশ্য—এই বেকার-সমস্যার দিনে যদি কেহ ইহা হইতে কোন নুতন আলোক বা সমাধান পান। কল্পনার জাল বুনিবার ইহাতে অবসরও নাই, কল্পনাবিলাসীও আমি নই। সাদা চোখে সাদা জিনিষই আমি দেখিতে পাই— বলিয়াছিও আমি সাদা কথাই । অনেকেই বাঙালীকে ব্যবসায় করিতে উপদেশ দেন দেখিতে পাই। কিন্তু এই ভীষণ প্রতিযোগিতার দিনে ব্যবসানভিজ্ঞ, মূলধনশূন্ত সাধারণ বাঙালীর ছেলেরা কি ভাবে ব্যবসায় আরম্ভ করিলে সাফল্য লাভ করিতে পারে, কোন চিস্তাশীল লেখক বা বক্তা তাহার কোন নির্দিষ্ট কার্যকরী পন্থা দিতে পারিয়াছেন বলিয়া আমার জানা নাই । বাঙালীর ব্যবসায়ী নহে এবং বাংলাভাষায় ব্যবসা সম্বন্ধে কোন ভাল পুস্তক আছে বলিয়াও আমি জানি না। বাংলার অধিকাংশ ব্যবসাই