পাতা:ব্যবসায়ে বাঙালী.djvu/৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


●> o ব্যবসায়ে বাঙালী ইহার উপর নিঃসন্দেহ বিশ্বাস স্থাপিত হইবে। একবার যদি চাষীদের বিশ্বাস হইয়া যায়, আর প্রচারের (publicity) প্রয়োজন হইবে না। এই সমস্ত প্রতিষ্ঠানের কপিগণ চাষীদের মাল লইয়া নৌকায় বা রেলে কলিকাতায় আড়তদার লিমিটেড, কোম্পানীতে চালান করিবেন। তথায় উক্ত মাল বিক্রয় করিয়া নিজেরা প্রতি মণে 9• কিংবা v• কমিশন কাটিয়া রাখিয়া বিক্রয়-লব্ধ অবশিষ্ট সমুদয় টাকা কৃষকসম্প্রদায়কে পরিশোধ করিয়া দিবেন। উক্ত মাল ঘরে রাখিয়া বিক্রয় করিলে যদি কৃষকগণ ৫২ টাকা দর পাইত, আর এই প্রতিষ্ঠানের মারফতে বিক্রয় হওয়ায় যদি ৫০ দর পায়, তাহাতে তাহারা লাভ মনে করিবে। ইহাতে ক্রমশঃ তাহারা এই প্রতিষ্ঠানের প্রতি আকৃষ্ট হইয়া পড়িবে ৷ কৃষক-সম্প্রদায়ের নিকট হইতে মাল লইবার সময় যাহার নিকট হইতে যে-পরিমাণ মাল লওয়া হইবে, ওজন ঠিক করিয়া দলিল স্বরূপ তাহাকে একটা হাতচিঠা লিখিয়া দিতে হুইবে এবং প্রত্যেক কৃষকের মাগে পৃথক পৃথক্ চিহ্ন ( mark ) দিয়া মাল চালান করিতে হইবে । নচেৎ একের প্রদত্ত মাল অন্যের মালের সহিত মিশিয়া গণ্ডগোলের স্বষ্টি হইতে পারে। কারণ সকলের মাল একই প্রকার (same quality) নহে। কাহারও মাল হয়তো কম দরে বিক্রয় হইবে, কাহারও বা বেশী দরে বিক্রয়ের সম্ভাবনা ৷ এই কারবারে সব চেয়ে বড় কথাই হইল কৃষকের বিশ্বাস-অর্জন । যতদিন কৃষক-সম্প্রদায় এই সমস্ত ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র প্রতিষ্ঠানের উদেশ্ব ও সততা সম্বন্ধে নিঃসন্দিগ্ধচিত্ত হইতে না পারিবে, ততদিন ইহাদের কোন সার্থকতা থাকিবে না । এই সমস্ত মাল চালান হইলে বিক্রয় হইয়া টাকা পাইতে কিছুদিন বিলম্ব হইতে পারে । তজ্জন্য হয়তো কোন কোন চাষীকে অগ্রিম কিছু কিছু টাকা প্রদান করিতে হইবে। স্বতরাং এই সকল প্রতিষ্ঠানের সব সময়েই কিছু মূলধন হাতে রাখা দরকার। *