পাতা:ভারত পথিক - সুভাষ চন্দ্র বসু.pdf/১৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।


পাবার সময় জুন ১৯২১। কিন্তু এ বিষয়েও রেডেওয়ে সাহেব সাহায্য করলেন অপ্রত্যাশিতভাবে। কয়লাখনির ধর্মঘট ও আমার মিলিটারি শিক্ষা ইত্যাদির কথা তুলে তিনি কর্তৃপক্ষকে নরম করে আনলেন। ফলে সে টার্মেই আমি ভরতি হলাম। রেডেওয়ের সাহায্য ভিন্ন যে বিলেতে বসে কী করতাম জানি না।

২৫শে অক্টোবর লণ্ডনে পৌছই, কিন্ত‌ু কেম্ব‌্রিজে গুছিয়ে বসতে বসতে নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ গড়িয়ে গেল। আমাকে যেসব বক্ত‌ৃতায় উপস্থিত থাকতে হত তার সংখ্যা ছিল অত্যধিক কারণ মেন্টাল এন্ড মরাল সায়ান্সেস ট্রাইপস ছাড়াও সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার ক্লাস ছিল। বক্ত‌ৃতার সময়ের বাইরে যথাসাধ্য পড়াশুনো করতে হত। কোনো স্ফ‌ূর্তির অবকাশ ছিল না, এক পরিশ্রমের মধ্যেই যেটুকু পাওয়া যায় সেটুকু ছাড়া। সেকালের সিভিল সার্ভিসের নিয়মানুসারে আমাকে আট নয়টি পৃথক বিষয়ে পরীক্ষা দিতে হবে, তার মধ্যে কয়েকটি আমার কাছে সম্পূর্ণ নতুন। আমার পাঠ্যতালিকায় ছিল ইংরিজি রচনা, সংস্কৃত, দর্শন, ইংরিজি আইন, রাষ্ট্রনীতি, আধুনিক য়রোপের ইতিহাস, ইংলণ্ডের ইতিহাস, অর্থনীতি, ভূগোল। এসব বিষয়ে পড়াশোনা ছাড়া সার্ভে করা ও ম্যাপ তৈরি (কার্টোগ্রাফি) ছিল ভূগোলের অন্তর্গত, এবং আধুনিক য়ুরোপ পড়তে গিয়ে কিছুটা ফরাসীও আয়ত্ত করতে হত।

মেন্টাল এণ্ড মরল সায়ান্সেস ট্রাইপস-এর কাজটা আমার ভালো লাগত বেশি, কিন্তু বক্ত‌ৃতায় যোগ দেওয়া ছাড়া ও বিষয়ে অগ্রসর হবার উপায় ছিল না। বক্ত‌ৃতা দিতেন পোফেসর সর‍্লে (এথিক‍্স), প্রোফেসর মায়ার্স (সাইকলজি) ও প্রোফেসর ম্যাকটেগার্ট (মেটাফিজিক্স)। প্রথম তিন টার্ম প্রায় সমস্ত সময়টাই খরচ হত সিভিল

১২৪