পাতা:ভারত পথিক - সুভাষ চন্দ্র বসু.pdf/১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

 দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ

বংশ পরিচয়

আমাদের পরিবারের ইতিহাস প্রায় সাতাশ পুর‍ুষ পর্যন্ত পাওয়া যায়। বোসেরা জাতে কায়স্থ। এই বোসদের দক্ষিণ রাঢ়ী শাখার প্রতিষ্ঠাতা দশরথ বোসের দুটি ছেলে, কৃষ্ণ ও পরমা। এঁদের মধ্যে পরমা পূর্ববঙ্গে বসবাস করতেন, আর কৃষ্ণ পশ্চিমবঙ্গে। দশরথ বোসের একজন প্র-প্রপৌত্র মুক্তি বোস কলকাতা থেকে ১৪ মাইল দূরে মহিনগরে বাস করতেন, সেই থেকেই এঁরা মহিনগরের বসুপরিবার নামে বিখ্যাত। দশরথের দশ পুর‍ুষ নিচে মহিপতি—ইনি অসাধারণ জ্ঞানী ও গুণী ছিলেন। বাঙলার তৎকালীন রাজা তাঁকে অর্থ ও সমর সচিব নিযুক্ত করেন এবং তাঁর কাজে সন্ত‌ুষ্ট হয়ে তাঁকে সুবুদ্ধি খাঁ উপাধি দেন। সে সময়কার প্রথা অনুসারে মহিপতি পুরস্কার স্বর‍ূপ রাজার কাছ থেকে জায়গীরও পেয়েছিলেন— মহিনগরের কাছে সুবুদ্ধিপুরই বোধ হয় সেই জায়গীর। মহিপতির দশ ছেলের মধ্যে চতুর্থ ঈশান খাঁ-ই বিখ্যাত। রাজদরবারে মহিপতির স্থান ঈশান খাঁ-ই দখল করেছিলেন। ঈশান খাঁর তিন ছেলে— তিনজনই রাজার কাছ থেকে উপাধি পেয়েছিলেন। মধ্যম ছেলে গোপীনাথ অসাধারণ বীর ও ক্ষমতাশালী ছিলেন। তাঁকে তৎকালীন সুলতান হোসেন শাহ (১৪৯৩-১৫১৯) অর্থসচিব ও নৌসেনাধ্যক্ষ