পাতা:মহাত্মা কালীপ্রসন্ন সিংহ.djvu/১২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চতুর্থ পরিচ্ছেদ। (to

    • A***********A**ゞ*********、*、*ヘ*ヘー%ダ******w/* ヘ**く、ヘ*****、*、*ゞや%、ヘ**ヘ***xダい***ヘ*x*

যে মহাপণ্ডিতের যত্বে ও চেষ্টায় প্রাচ্যদেশে প্রতীচ্যের জ্ঞানালোক সর্বপ্রথমে বিকীরিত হইয়াছিল, র্যাহার শিক্ষার গুণে বঙ্গভাষায় ‘মেঘনাদবধের ন্যায় কাব্য বিরচিত হইয়াছিল, সেই চিরস্মরণীয় শিক্ষক, কবি, সমালোচক ও সদ্বক্তা ডি, এল, রিচার্ডসনের ইংলণ্ড-প্রত্যাগমনকালে যে সকল কৃতজ্ঞ ভারতবাসী তাহাকে পঞ্চসহস্র মুদ্রার থলি ও অভিনন্দনপত্র প্রদান করিতে অগ্রসর হইয়াছিলেন, তাহদের মধ্যেও আমরা কালীপ্রসন্নকে দেখিতে পাই। আচাৰ্য্য কৃষ্ণকমল যথার্থই বলিয়াছেন, “তিনি যেমন তাহার Purseএর সদ্ব্যবহার করিতে জানিতেন, তেমন আর কেহই জানিত না।” সকল প্রকার দেশহিতকর কার্য্যে তিনি মুক্তহস্তে দান করিতেন। যখন কলিকাতায় বিশুদ্ধ জলের কল স্বস্ট হয় নাই, তখন কালীপ্রসন্ন দশসহস্র মুদ্রা বায়ে কলিকাতায় ৫টা বারি-প্রস্রবণ নিৰ্ম্মিত করাইয়া দিয়াছিলেন। কালীপ্রসন্নের দানের বিশেষত্ব এই যে, তাহার সমস্ত দানই সাত্ত্বিক দান। তিনি কি দেশীয়, কি বিদেশীয়, কাহারও প্রশংসা লাভ করিবার জন্য দান করিতেন না। র্তাহার অসংখ্য দানের কথা বলিয়া শেষ করা যায় না । দয়ার সাগর বিদ্যাসাগর এই জন্যই কালীপ্রসন্নকে পুত্রাধিক স্নেহ করিতেন। কৃষ্ণদাস পাল লিখিয়াছেন – “In the hey-day of his career Kali Prossunno resembled the great Macaenas in the open বদন্তিতা ।