পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/১০০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কলিকাতা বাস । సి( আক্রমণ করেন । তাহাতে “রামদাস” এই কল্পিত নাম স্বাক্ষর করিয়া হিন্দুভাব অবলম্বন পূৰ্ব্বক রামমোহন রায় তাহার এইরূপ উত্তর দিলেন যে, "রামমোহন রায় পৌত্তলিকহিন্দু ও ত্রিত্ববাদী খৃষ্টিয়ান উভয়েরই পরম শত্রু। রামমোহন রায় ঈশ্বরের বহুত্ব ও অবতারবাদ উভয়েরই প্রতিবাদী। ঐ দুটা মতই হিন্দু ও ত্রিত্ববাদী খিষ্টিয়ান উভয়েরই মূল মত। সুতরাং এস, আমরা(হিন্দু ও খ্রিষ্টিয়ান) একত্র মিলিত হইয়া আমাদের সাধারণ শত্র রামমোহন রায়কে আক্রমণ করি।” এই উত্তর পত্র খানি কোথা হইতে আসিল, কেহ জানিতে পারিল না। একজন ঘৃণিত পৌত্তলিক, খৃষ্টিয়ানের সহিত সাধারণভূমিতে দণ্ডায়মান হইতে চায়, ইহা টাইটলর সাহেব বা অপর খৃষ্টয়ানদিগের সহ হইবে কেন ? তিনি অত্যন্ত বিরক্ত হইয়া রামদাসের পত্রের উত্তর দিলেন। বলিলেন যে, "ীষ্টধর্মে ও হিন্দুধৰ্ম্মে তুলনা করা অতি অন্যায় কৰ্ম্ম ; উহাদের সাধারণ ভূমি এক হইতে পারে না। ঘোরতর যুদ্ধ আরম্ভ হইল। “রামদাস” অতি পরিষ্কাররূপে প্রদর্শন করিলেন যে, ত্রিত্ববাদী খ্ৰীষ্টিয়ানের ধৰ্ম্ম ও পৌত্তলিক হিন্দুর ধর্মের ভিত্তিমূল এক —অবতারবাদ ও ঈশ্বরের বহুত্ব। খ্ৰীষ্টধর্মের শ্রেষ্ঠত্ব প্রতিপন্ন করিবার জন্ত টাই টলর সাহেব ও তাহার পক্ষ-সমর্থনকারী খৃষ্টিয়ানগণ ধীষ্টের অলৌকিক ক্রিয়া, খ্ৰীষ্টধৰ্ম্মে ভবিষ্যদ্বানী পূর্ণ হওয়া ইত্যাদি অনেক দেখাইলেন। “রামদাস”ও হিন্দুশাস্ত্র হইতে সে সকল প্রচুর পরিমাণে প্রদর্শন করিলেন। উভয় পক্ষ হইতে অনেক উত্তর প্রত্যুত্তরের পর “রামদাসের”ই জয় হইল। সংবাদপত্রে