পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/১১০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কলিকাতা বাস। o(t যে লোকের নিকট প্রচার করিতে হইবে, তাহাদিগের জাতীয় ভাব ও রুচির অনুবৰ্ত্তী হইয়া তদনুরূপ প্রণালী অবলম্বন করাই fo ("Be all unto all men” of $fatá čqū’t sing কপটতাচরণ যে মহাপাতক, তাহ বলা বাহুল্য। তবে রামমোহন রায়ের দোষ কেথায়? সমাজে যে হিন্দুপ্রণালী অবলম্বিত হইয়াছিল, তাহ টুষ্ট-উীড-পত্রের কোন কথার বিরুদ্ধ ? এ পর্য্যন্ত কেহ তাহ প্রদর্শন করিতে পারেন নাই। কেহ কেহ বলেন যে, রামমোহন রায়ের সময়ে সমাজে যে ঘরে বেদ পাঠ হইত, সেখানে শূদ্রের প্রবেশাধিকার ছিল না। সত্য হইলে, এপ্রকার নিয়ম নিশ্চয়ই অসাম্প্রদায়িকভাবের বিরোধী। কিন্তু রামমোহন রায়ের এক জন প্রধান শিষ্য বাৰু চন্দ্রশেখর দেব আমাদের কোন বন্ধুর নিকট এ কথা অস্বীকার করিয়াছিলেন। “স্ত্রী শূদ্র দ্বিজবন্ধুনাং ত্রয়ী ন শ্রুতিগোচর।” এ বাক্যটি রামমোহন রায় তাহার প্রচারিত গ্রন্থে বেদবিরুদ্ধ বলিয়াছেন। সুতরাং তজ্জন্তও উক্ত কথাটি অমূলক বলিয়া প্রতীত হইতেছে। সমাজকে যদিও হিন্দু আকার দেওয়া হইয়াছিল; কিন্তু উহা মূলে বিদেশীয় দিগের অমুকরণ। প্রকাশু সভা করিয়া সামাজিক উপাসনা দেশীয় ভাব নহে । সমাজের ইতিবৃত্তেও দেখা যাইতেছে যে, আড্যাম সাহেবের ইউনিটেরিয়ান সোসা ট দেখিয়া তদনুকরণে আর একটি উপাসনা সভ করা হইয়াছিল। তবে সেই অনুকরণকে সম্পূর্ণরূপে হিন্দু আকার দেওয়া হয়।