পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/১৬৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৬৪ মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত! তের অশেষ অনিষ্টের মূল জাতিভেদ-প্রথার মস্তকে কুঠার ঘাত করিয়াছিলেন, সেই রামমোহন রায়ই জাতীয় সাহিত্যের উন্নতির জন্য, বাঙ্গালী ভাষায় ব্যাকরণ ও সাধারণ হিতকর অদ্যান্য রচনা প্রকাশ করিয়াছিলেন ; আবার সেই রামমোহন রায়ই স্বদেশীয় ভ্রাতৃগণের বৈষয়িক ও রাজনৈতিক ও উন্নতির জন্য প্রাণগত যত্ন করিয়াছিলেন । এমন কি, ধৰ্ম্ম ও সমাজসংস্কারের ন্যায় তিনি রাজনীতি সম্বন্ধেও অদ্বিতীয় নেতা ছিলেন। র্তাহার সময়ের প্রায় সমুদয় রাজনৈতিক আন্দোলনের তিনিই মূল। বাল্যকাল হইতেই রামমোহন রায়ের রাজনৈতিক ভাব প্রবল ছিল। উপক্রমণিকায় তাহার যে পত্রের অনুবাদ প্রকাশিত হইয়াছে, তাহাতে জানা যাইতেছে যে, তিনি ষোড়শ বৎসর বয়ঃক্রমে বিদেশীয় অধিকারের প্রতি আন্তরিক ঘৃণাবশতঃ ভারতবর্ষ পরিত্যাগপূৰ্ব্বক হিমালয়ের অপর পাশ্ববর্তী দেশ সকল ভ্রমণার্থ গমন করিয়াছিলেন। কিন্তু ইংরেজ রাজত্বের প্রতি তাহার এ প্রকার বিদ্বেষভাব স্থায়ী হয় নাই। তিনি ক্ৰমে বুঝতে পারিয়াছিলেন যে, ইংরেজশাসন হইতে ভারতের প্রভূত কল্যাণ উৎপন্ন হইবে। সে যাহা হউক তিনি ভারতবর্ষে অবস্থান কালে এ দেশের রাজনৈতিক মঙ্গলের জন্য যাহা কিছু করিয়াছিলেন, আমরা যতদূর জানিতে পারিয়াছি, পাঠকবর্গকে জ্ঞাপন করিতে প্রবৃত্ত হইলাম। সংবাদপত্র প্রকাশ । ১ম, আমরা পুৰ্ব্বেই বলিয়াছি যে, তিনি বাঙ্গালা s পারস্তা