পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/১৭৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২১৭ মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত ! ধৰ্ম্মিণীর চিতার উপরে দাম্পত্যপ্রণয়ের নিদর্শন স্বরূপ একটি স্তম্ভ নিৰ্ম্মাণ করিয়াছিলেন। বিলাতগমনের সংকল্প । রাজ রামমোহন রায় বহুদিন হইতে বিলাত গমনের ইচ্ছা করিতেছিলেন ; কিন্তু জন্মভূমির মঙ্গলের জন্ত তিনি যে সকল মঙ্গদকুষ্ঠানের স্বচনা করিয়াছিলেন, পাছে সে সকলের কোন অনিষ্ট হয়, সেই জন্য হঠাৎ স্বদেশ পরিত্যাগ করিতে পারেন নাই। উপক্রমণিকায় প্রকাশিত পত্রে তিনি স্বয়ং বলিতেছেন ;–“এই সময়ে ইয়োরোপ দেখিতে আমার বলবর্তী ইচ্ছা জন্মিল। তত্ৰত্য আচার ব্যবহার, ধৰ্ম্ম ও রাজনৈতিক অবস্থা সম্বন্ধে অধিকতর জ্ঞান লাভ করিবার জন্ত স্বচক্ষে সকল দেখিতে বাসনা করিলাম। যাহা হউক, যে পর্য্যন্ত না আমার মতাবলম্বী বন্ধুগণের দলবল বুদ্ধি হয়,সে পৰ্য্যস্ত আমার অভিপ্রায় কার্য্যে পরিণত করিতে ক্ষান্ত থাকিলাম।” ক্রমে অবস্থা অমুকূল হইয়া আসিল, তিনি বিলাতযাত্রার জন্ত প্রস্তুত হইতে লাগিলেন। রামমোহন রায় বিলাত যাইবেন বলিয়া দেশের সর্বত্র ঘোরতর আন্দোলন উপস্থিত হইল। ইহার পূৰ্ব্বে কখন কোন হিন্দু সন্তান অর্ণবানারোহণে স্লেচ্ছদেশে যাত্রা করেন,নাই। কুসংস্কারান্ধ দেশবাসীগণ অবাক হইলেন। ঘৃণা, বিদ্বেষ, ও আশ্চৰ্য্য এই সকল ভাব পর্য্যায়ক্রমে লোকের হৃদয়কে অধিকার করিতে লাগিল; আবাল বৃদ্ধ বনিতা সকলের মুখে এই এক কথা “রামমোহন রায় বিলাত যাইবে” !