পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/১৯২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ইংলণ্ড-বাস । >br A মেটাল বন্দরে নঙ্গর করিয়াছিল ; সেই সময় তথায় একখানি ফরাসি জাহাজে স্বাধীনতার পতাকা উড়িতেছে শুনিয়া আগ্রহাতিশয় সহকারে উহা দেখিতে গিয়া হঠাৎ পতিত হইয়া তাহার একটি পদ ভগ্ন হইয়া যায়। উহা সম্পূর্ণ আরোগ্য হইল না। বিলাতে তাহাকে খুড়িয়া চলিতে হইত। রাধানগরে বাল্যাবস্থা হইতে ইংলণ্ডে পরিণত বয়স পর্য্যন্ত প্রবল স্বাধীনতাপ্রিয়তা র্তাহার চরিত্রে চিরদিনই লক্ষিত হয়। রামমোহন রায় ইংলণ্ডে পেছিবার পূৰ্ব্বে তথায় তাহার খ্যাতি বিস্তৃত হইয়াছিল । মুতরাং তিনি ইংলণ্ডে আসিতেছেন শুনিয়া অনেকেই ব্যাকুল ভাবে, প্রত্যাশাপূর্ণ হৃদয়ে তাহার প্রতীক্ষা করিতে লাগিলেন। লিভারপুল নগরে পৌছান। ১৮৩১ সালের ৮ই এপ্রেল দিবসে চারিমাস ২৩ দিনে"অ্যাল্‌বিয়ান্‌” তাহার গম্যস্থানে উত্তীর্ণ হইল। রামমোহন রায় সেই দিনেই লিভারপুল নগরে গিয়া উপস্থিত হইলেন । রামমোহন রায়ের ইংলও পৌছিবার সংবাদ পাইয়া উইলিয়ম্ র্যাথবোন্‌ সাহেব তাহার “গ্রীনব্যাঙ্ক’ নামক ভবনে বাস করিবার জন্য তাহাকে অনুরোধ করিলেন। কিন্তু তিনি স্বতন্ত্র ও স্বাধীন ভাবে অবস্থিতি করাই শ্রেয়স্কর মনে করিয়া র্যাডলিস্ হোটেল নামক এক প্রসিদ্ধ হোটেলে অবস্থিতি করিতে লাগিলেন। সেখানে বহুসংখ্যক ভদ্রলোক, অনেক সন্ত্রান্ত ব্যক্তি, র্তাহার সহিত সাক্ষাৎ করিতে আসিতেন। একজন ইংলণ্ডবাসী জাহাজের কোন সামান্ত কার্য্যে নিযুক্ত হইয়া কলিকাতায়