পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/২২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ইংলণ্ড-বাস । ミ>" ইতেছিল। সেই জন্ত রামমোহন রায়ের লণ্ডনে অবস্থিতি এবং সৰ্ব্বদা পালেমেণ্ট ভবনে গমন করা একান্ত আবশ্বক ছিল। দেশের রাজনৈতিক মঙ্গলের জন্ত এই সময়ে তিনি বিবিধ প্রকারে চেষ্টা ও পরিশ্রম করিতেছিলেন। একজন লেখক লিয়াছেন যে, এই সময়ে তাহাকে সৰ্ব্বদা পালেমেণ্ট ভবনে দেখা iাইত। কুমারী কাসেলুকে একখানি পত্রে রামমোহন রায় এইরূপ লিখিতেছেন –“অদ্য কমান্য সভায় ভারতবর্ষ সম্বন্ধীয় পাণ্ডুলিপি তৃতীয় বার পঠিত হইবে। কমিটীতে বিবিধ প্রকার স্থল করিয়া সুদীর্ঘ ও বিরক্তিকর তর্ক বিতর্কম্বারা কার্য্যের ব্যাঘাত উপস্থিত করা হইয়াছে। কমান সভায় এই পাণ্ডুলিপি পাস হইলে, লর্ডদিগের সভায় কি হইবে তাহ আমি শীঘ্ৰ নিৰ্দ্ধারণ করিতে পারিব। তখন আমি উহার শেষফল শুনিবার জষ্ঠ প্রতীক্ষা না করিয়া লণ্ডন পরিত্যাগ করিব । পর সপ্তাহে আমি ব্রিষ্টল যাত্রা করিব। লণ্ডন হইতে যাইবার পথে আমি বাথ নগরে এবং তাহার নিকটবর্তী স্থানে আমার পরিচিত ব্যক্তিগণকে দেখিয়া যাইব ।” এই সময়ে রামমোহন রায় স্বদেশের রাজনৈতিক কল্যাণসাধনের জন্ত যার পর নাই ব্যস্ত থাকিতেন। ভারতবর্ষে ও ইংলণ্ডের নানা স্থানে পত্র লিখিতেই র্তাহার অনেক সময় যাইত । సె