পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/২৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৩২ মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত । ৰাইতেছে। এক কিম্বা দুই ঘণ্টা পৰ্য্যন্ত অল্প বা অধিক পরি মাণে এইরূপ চলিল। আমরা যে ঘরে আসিয়াছি, বোধ হইল তাহা তিনি জানিতে পারেন নাই। যদিও প্রাতঃকালে যখন আমি তাহার নিকটে গমন করিলাম, তিনি আমাকে দেখিয় মৃদুহান্ত করিলেন এবং সস্নেহে আমার হস্তমদন করিলেন । আমরা তাহার চুল কাটিয়া মাথায় শীতল জল প্রয়োগ করিতে লাগিলাম। ধমুষ্টঙ্কার থামিয়া গেলে বোধ হইল তিনি নিদ্রা ৰাইতেছেন । চক্ষু এখনও খোল। চক্ষুর পুত্তলিকা ছোট হইয়া গিয়াছে ; বোধ হইল বাম বাহু এবং পদ অবশ হইয়। গিয়াছে । আমরা স্থির করিলাম সায়ংকালে ডাক্তার বার্ণাডকে . ডাকিতে হইবে। আমি সমস্ত দিন এখানে থাকিলাম। কি ঘটিবে তদ্বিষয়ে আমার অতিশয় ভয় হইতে ছিল। অপরাচুে উাহার শরীর অধিকতর গরম হইল এবং নাড়ী আর একটু প্রবল হইল কিন্তু সাপ্ত ছয় ঘটিকার সময় আবার ধনুষ্টঙ্কার হইতে লাগিল। অনেক ঘণ্টা ধরিয়া, অনেক কষ্ট্রে কিছু খাদ্য র্তাহার গলাধঃকরণ হইয়াছিল। সুতরাং, র্তাহার পুষ্টির জন্ত আরও কিছু থাইতে দেওয়া সম্ভব হইল না। প্রাতঃকালে যখন তিনি আমার প্রতি দৃষ্টিপাত করিয়া আমাকে ধন্যবাদ করিলেন, তাছার পর হইতে র্তাহার প্রায়ই কিছু জ্ঞান ছিল না। ডাক্তার বার্ণার্ড আসিতে পারিলেন না। প্রিচার্ড এবং ক্যারিক রাজাকে মুম্বন্ধু অবস্থায় রাখিয়া তিনি চলিয়া গেলেন। দুই প্রছরের পূৰ্ব্বে কেহ শয্যায় গমন করিল না। কুমারী কিডেল অনেক সময় রাজার নিকটে ছিলেন। কুমারী কাসেল মধ্যে মধ্যে