পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/২৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৪ • মহাত্মা রাজ রামমোহন রায়ের জীবনচরিত। দিগের শারীরিক অস্বাস্থ্য ও ক্ষীণত মানসিক ও মাধ্যায়িক উন্নতি পথে গুরুতর প্রতিবন্ধক উপস্থিত করিতেছে। বিশ্ব বিদ্যালয়ের এক একটা পরীক্ষায়, মনে হয়, যেন তাহাদের শরীরের অৰ্দ্ধেক রক্ত হ্রাস হইয়া গেল। বি, এ বা এম, এ পাস করিয়াই অনেকে একান্ত নির্জীব হইয়া পড়েন। ইহা কি সামান্ত আক্ষেপের বিষয় ! প্রভূত শারীরিক বল ও স্বাস্থ্য থাকাতে রামমোছন রায় প্রবল পরাক্রমে আপনার সুমহৎ কার্য্য সম্পন্ন করিতে পারিয়াছিলেন। যে সময়ে তিনি কলিকাতায় অবস্থিতি করিয়া ব্ৰক্ষ জ্ঞান প্রচার, সমাজ সংস্কার ও রাজনৈতিক আন্দোলনে আপনার .°चौब्र, भञaा५ উৎসর্গ করিয়াছিলেন, সেই সময়ে একদিন এক ব্যক্তি আসিয়া তাহাকে বলিলেন মহাশয় আপনি সাকার উপাসনার বিরুদ্ধে পুস্তক প্রচার কল্লিতেছেন,—প্রতিমাপূজার অসারত্ব দেশের লোককে বুঝাইয়া দিতেছেন বলিয়া গোড়া পৌত্তলিকেরা আপনার প্রতি এতদূর ক্রুদ্ধ হইয়াছে যে,এক দিন আপনাকে পথে ধরিয়া প্রহার করিবে। রামমোহন রায় একটু হাস্য করিয়া বলিলেন,-“আমাকে মারিবে ?’ কলিকাতার লোক আমাকে মারিবে ? তাহারা কি খায় ? বিদ্যা বুদ্ধি। পাঠকবর্গ রাজ রামমোহন রায়ের অসামান্ত বিদ্যা বুদ্ধির যথেষ্ট পরিচয় প্রাপ্ত হইয়াছেন ; তথাচ তদ্বিষয়ে আমরা আরও কয়েকট কথা বলিব । পণ্ডিতবর ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর