পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/২৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আরও কয়েকট কথা । ২৪৩ করিয়াছিলেন, তিনি উক্ত নল সংযোগে ধূমপান করিতে লাগিলেন। ঘোরতর তর্কমৃদ্ধ চলিতে লাগিল। অনেকক্ষণের পর রামমোহন রায় তামাক দিবার জন্তু পুনৰ্ব্বার ভূত্যকে আজ্ঞা করিলেন। সেই ভট্টাচাৰ্য্যটা পুনৰ্ব্বার সেই নল সংযোগে তাম্রকৃষ্ট সেবন আরম্ভ করিলেন। তখন রামমোহন রায় উপযুক্ত সময় বুঝিয়া তাহাকে আক্রমণ করিলেন, বলিলেন। “দেবতা ! এ আপনার কেমন ব্যবহার ? আপনি আমাকে যে উপদেশ দিলেন নিজে কেন তাঙ্গর বিপরীত ব্যবহার করেন ? যে দুস্তকাষ্ঠ একবার উচ্ছিষ্ট হইয়াছে, তাহ ব্যবহার করা যদি অনাচার ও অধৰ্ম্ম হয়, তাহান্তইলে যে নল একবার উচ্ছিষ্ট করিয়াছেন, কি বলিয়া তাহ পুনৰ্ব্বার ব্যবহার করিতেছেন?” ভট্টাচাৰ্য্য , মহাশয়, রামমোহন রায়ের কৌশলে ধরা পড়িয়া লজ্জিত ও নিরুত্তর হইলেন। খ্ৰীষ্টীয়ান পাদ্রিদিগের সহিত রামমোহন রায়ের বিচারের বিষয় পাঠকবর্গের স্মরণ আছে। রামমোহন রায় মূল হিব্রু ও গ্ৰীক বাইবেল হইতে প্রয়োজনীয় অংশ সকল উদ্ধৃত করিয়া, মার্সম্যান প্রভৃতি মহাপণ্ডিত খ্ৰীষ্টয়ান পাদ্রিদিগকে অবাস্তু করিয়া দিয়াছিলেন ; তাহীর সহিত তৰ্কযুদ্ধে তাহার কেমন পরাস্ত ও নিরুত্তর হইয়াছিলেন ! ইয়োরোপীয়দিগের একখানি পত্রিকায় ইয়োরোপীয় সম্পাদক এই বিচার বিষয়ে বলিয়াছিলেন, , -“He (Rammohun Roy) has not met with his match yet in India” of s খ্ৰীষ্টীয়শাস্ত্র সম্বন্ধে তাঙ্কার পাণ্ডিত্য যেমন অসাধারণ, হিন্দু ও মুসলমান শাস্ত্র সম্বন্ধেও