পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২• মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত। ঘটনা উল্লেখ করিলেই যথেষ্ট হইল। প্রায় এক শতাব্দী পূৰ্ব্বে যখন ভারতবর্ষ কুসংস্কার অন্ধকারে আচ্ছন্ন, যখন পাশ্চাত্যজ্ঞানের একটিও রশ্মি সেই তিমিরজাল ভেদ করে নাই, যখন ভারতে ইংরেজী শিক্ষা; সভা, বক্ততা; সংস্কার এ সকলের স্বত্র । পাতমাত্রও হয় নাই, তখন প্রায় ষোড়শবর্ষীয় এক বালক দেশপ্রচলিত ধৰ্ম্মের বিরুদ্ধে গ্রন্থ লিথিয় পিতৃগৃহ হইতে বিদূরিত হইল! কেবল তাঁহাই নহে। যখন এ প্রকার যাতায়াতের স্ববিদ ছিল না, রেলওয়ে ছিল না, এক দিবসে প্রয়াগাত্রা উপন্যাসের কথা ছিল, সৰ্ব্বত্রই দম্য তস্করের ভয়, সেই সময়ে এক জন বাঙ্গালী বালক ভারতের বিভিন্ন প্রদেশ ভ্রমণে প্রবৃত্ত হইল! কেবল তাহাই নহে। যে সময়ে হিমাচলকে পৃথিবীর সীমা বলিয়া লোকের সংস্কার ছিল, যে সময়ে সাত শত বৎসরের কঠোর নিষ্পেষণে স্বাধীনতার ভাব দেশবাসীগণের হৃদয় হইতে বিলুপ্ত হইয়াছিল,যে সময়ে চিরপ্রচলিত কুসংস্কারে আবাল বৃদ্ধ বনিত সকলেই নিমজ্জিত, যে সময়ে বিদেশভ্রমণ বঙ্গবাসীর পক্ষে নিতান্ত দুষ্কর ও কষ্টকর কার্য্য বলিয়া পরিগণিত হইত, সেই সময়ে প্রায় ষোড়শবর্ষীয় এক বাঙ্গালীর সন্তান, বিদেশীয় শাসনের প্রতি আন্তরিক ঘৃণাবশতঃ এবং বৌদ্ধধৰ্ম্মের তত্ব সকল অবগত হইবার জন্ত, সম্পূর্ণরূপ সহায়সম্বলবিহীন অবস্থায় তিব্বং দেশে গিয়া উপস্থিত হইল, এবং এই অসাধারণ বালক সেই বন্ধুহীন দেশে কিছুকাল বাস করিল ! স্ত্রীজাতির প্রতি শ্রদ্ধা । রামমোহন রায় এখানে মধ্যে মধ্যে বিপদে পড়িতেন ।