পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/২৮৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৮২ মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত । কোন প্রকার সাম্প্রদায়িক নামে পূজা করা হইবে না,এবং উপাসনার জন্য কোন প্রকার সাম্প্রদায়িক প্রণালী অবলম্বিত হইবে না । যে ব্যক্তি কোন একখানি বিশেষ শাস্ত্রকে ঈশ্বরপ্রেরিত মাপ্ত বাক্য বলিয়া বিশ্বাস করেন, অথবা যিনি ব্যক্তিবিশেষকে ঈশ্বরপ্রেরিত একমাত্র গুরু ও নেতা বলিয়া স্বীকার করেন, তাছার পক্ষে এপ্রকার অসাম্প্রদায়িক সমাজ সংস্থাপন কি কখন সম্ভব হইতে পারে ? অমির পূৰ্ব্বে কবি টমাস মুরের রোজনামচা হইতে যে কয়েক পংক্তি উদ্ভূত করিয়াছি, তাহাতে পাঠকবর্গ অবগত হইয়াছেন যে, ব্রাহ্মসমাজ সংস্থাপনে রাজা রামমোহন রায়ের কি অভিপ্রায় ছিল। টষ্টউড পত্রে যাহা পরিষ্কার করিয়া লিখিত আছে, রামমোহন রায় তাহাই টমাস্ মুরকে বলিয়াছিলেন। কোন সাম্প্রদায়িক ধৰ্ম্মে বা শাস্ত্রে বিশ্বাসীর পক্ষে কি এরূপ অভিপ্রায়, এরূপ ভাব কখন সম্ভব হয় ? পঞ্চমতঃ প্রথম অধ্যায়ে উক্ত হইয়াছে যে, রাজা রামমোহন রায় পারত্ব ভাষায় “তোহফ ভুল মোহদীন” নামে এক খানি পুস্তক রচনা করিয়াছিলেন, উক্ত পুস্তকে তিনি পরমেশ্বরের নিকট অলৌকিক ভাবে প্রত্যাদেশপ্রাপ্তির অলীক প্রদর্শন করিয়াছেন । তিনি উহাতে বলিয়াছেন,-"ভ্রান্তস্বভাব ধৰ্ম্মপ্রয়োজকের দেশ বিশেষে, কাল বিশেষে, শাস্ত্রবিশেষ কল্পনা করিয়াছেন, আপনাদের স্বৰ্ধসাধন ও আপন ধর্শ্বের গৌরব বৰ্দ্ধন জন্তু দেৰঙ্গেবাদি ঘটিত উপাখ্যান রচনা করয়াছেন, যে সমস্ত ব্যাপায়ের নিগুঢ় তত্ত্ব লোকসাধারণের বোধগম্য হয় না,