পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কলিকাতা বাস। &Q কি না হয় ?” ইহার উত্তর। “ভট্টাচাৰ্য্য আপন অনুগতদিগকে উত্তম জ্ঞান দিতেছেন, যে ঈশ্বরের স্বঠকে আপন বুদ্ধিদোষে ঈশ্বর জ্ঞান করিলেও স্বপ্নের ব্যাঘ্ৰাদি দর্শনের ফলের স্তায় ফল সিদ্ধি হয়। কিন্তু ভট্টাচার্য্যের অমুগতদিগের মধ্যে যদি কেহ সুবোধ থাকেন, তিনি অবশ্য এই উদাহরণের দ্বারা বুঝিবেন যে, স্বপ্নেতে ভ্ৰমাত্মক ব্যাঘ্ৰাদি দর্শনেতে যেমন ফল সিদ্ধি হয়, সেইরূপ ফলসিদ্ধি,এই সকল কাল্পনিক উপাসনার দ্বারা হইবেক। স্বপ্ন ভঙ্গ হইলে যেমন সেই স্বপ্নের সিদ্ধ ফল নষ্ট হয়, সেইরূপ ভ্রমনাশ হইলেই ভ্রমজন্য উপাসনার ফলও নাশকে পায়, যখন ভট্টাচার্য্যের উপদেশদ্বারা তাহার কোন সুবোধ শিষ্য ইহা জানিবেন, তখন যথার্থ জ্ঞানাধীন যে ফল সিদ্ধ হয়, আর যে ফলের কদাপি নাশ নাই, তাহার উপার্জনে অবশু সেই ব্যক্তি প্রবৃত্ত হইতে পারেন।” - পরমেশ্বর যে রামকৃষ্ণাদি মনুষ্যরূপ ধারণ করেন, তদবিষয়ে ভট্টাচাৰ্য্য বলিতেছেন,—“যেমন কোন মহারাজ আচ্ছন্নরূপে সব প্রজাবর্গের রক্ষাণামুরোধে সামান্ত লোকের দ্যায় স্বরাজ্যে ভ্রমণ করেন, সেইরূপ ঈশ্বর রাম কৃষ্ণাদি মনুষ্যরূপে আচ্ছন্নস্বরূপ হইয়া স্বস্বষ্টি জগতের রক্ষা করেন।” ইহার উত্তরে রামমোহন রায় বলিতেছেন ;—কি রাম কৃষ্ণবিগ্রহে কি অব্রাহ্মস্তম্ব পর্য্যন্ত শরীরে পরমেশ্বর স্বকীয় মায়ার দ্বারা সৰ্ব্বত্র প্রকাশ পাইতেছেন। অন্মদাদির শরীরে এবং রামকৃষ্ণ শরীরে ব্রহ্মস্বরূপের নূ্যনাধিক্য নাই, কেবল উপাধিভেদ মাত্র। যেমন এক প্রদীপ স্বক্ষ আবরণ কাচাদি পাত্রে থাকিলে তাহার জ্যোতি