পাতা:মহাত্মা রাজা রামমোহন রায়ের জীবনচরিত.djvu/৮০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কলিকাতা বাস । ፃ¢ যে, পরমেষ্টি গুরুর আজ্ঞাবলম্বন করিয়া পরমার্থসাধন ও ঐহিক ব্যবহার অবশ্য কৰ্ত্তব্য হয় এবং নিন্দক মৎসরেরা সৰ্ব্বথা উপেক্ষণীয় হইয়াছে ” পাষণ্ডপীড়ন ও পথ্যপ্রদান । । নন্দলাল ঠাকুর রামমোহন রায়ের এক জন ঘোর বিপক্ষ ছিলেন। উল্লিখিত চারি প্রশ্নের উত্তর প্রকাশ হইলে তাহার ইচ্ছাক্রমে কাশীনাথ তর্কপঞ্চানন পূৰ্ব্বোক্ত “পাষণ্ডপীড়ন” নামে ২২৫ পৃষ্ঠা পরিমিত এক বৃহৎ গ্রন্থ প্রচার করেন। উহাতে রামমোহন রায়ের প্রতি অজস্র কটুকাটব্য বর্ষণ করা হইয়াছিল ; “পাষও” “নগরাস্তবাসী ভাক্ত তত্ত্বজ্ঞানী" ইত্যাদি মধুর বাক্যে তাহাকে সম্বোধন করা হইয়াছিল। "নগরাস্তবাসী'র দুই অর্থ, নগরের অন্তে যিনি বাস করেন ; অর্থাৎ রামমোহন রায় মাণিকতলায় বাস করিতেন । উহার আর এক অর্থ, চণ্ডাল । তর্কে শাস্ত-ভাব । পাষগুপীড়নের উত্তর “পথ্যপ্রদান” বাহির + হইল। পথ্যপ্রদানে রামমোহন রায় অতি সুন্দরন্ধপে প্রতিদ্বন্দ্বীর যুক্তি সকলের অসারত্ব প্রদর্শন করিলেন ; অথচ আদ্যোপান্ত সমস্ত

  • ইনি পরে সংস্কৃত কলেজের অধ্যাপক হইয়াছিলেন।

রাজা রামমোহন রায়ের গ্রন্থপ্রকাশক বাবু রাজনারায়ণ বস্ব বলিয়াছেন : —“এই সকল বিচারগ্রন্থের বিষয় প্রায়ই এক প্রকার। রামমোহন রায় পূৰ্ব্বোক্ত বেদান্তস্বত্র ও উপনিষৎ সকলের সহযোগে এক এক ভূমিকা দিয়া শাস্ত্রীয় প্রমাণ ও যুক্তিত্বারা ব্রহ্মোপাসনার শ্রেষ্ঠত্ব ও ঔচিত্য প্রতিপাদন করিয়ীছিলেন। তাঁহাতে প্রতিবাদকারীগণ নিরাকার ব্রহ্মোপাসনার কঠিনতা ও সীকার