পাতা:মহারাষ্ট্র-নৃপেন্দ্রকুমার বসু.djvu/১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় অধ্যয় বিচ্ছিন্ন প্রাচীন ইতিহাস এক হাজার বৎসর আগেকার মহারাষ্ট্র সম্বন্ধে বড় বেশী খবর আমরা পাই না। গুর্ণ' বলিয় এখনও একটা নিম্নশ্রেণীর জান্তি মহারাষ্ট্রের স্থানে স্থানে দেখিতে পাওয়া যায়; ইংদের মধ্যে অনেকেরই বেশ সুর স্বর ও বাদ্য সম্বন্ধে জ্ঞান আছে। লোকপ্রবাদ ও কিংবদন্তী দ্বারা যতখানি জানা গিয়াছে, তাহাতে মনে হয়, এই গুলীরাই মহারাষ্ট্রের আদিম অধিবাসী । তাছার পর কোন উল প্রভৃতি পার্বত্য জাতির ভূছিল । ইয়ার সকলেই অনা দ্রাবিড়। উত্তরভারতে আর্যজাতির প্রাধান্ত-বিস্তারের সময়, প্রাবিড় ও উহাদের মধ্যে বহু কালব্যাপী যে যুদ্ধ চলে, তাছার ফলে বহু প্রাবিড় নর্থ ও ডাগু নদীর ক্ষিণ আসিয়া বসতি স্থাপন করেন। আর্যগণ ঈর্ষাবশতঃ ইহাদিগকে অনার্যরাক্ষস বলিয়াছন ধটে ; কিন্তু যুদ্ধ ব্যায়, অন্ত্রশস্ত্রের ব্যবহারে এবং যুগাপযোগী লভ্যতায় দ্রাবিড়গণ যে জার্ষ্যগণ অপেক্ষ খুব নীচে ছিলেন, একথা কিছুতেই বল চলে না। অনুমান করিয়া বলা যায় যে, মহারাষ্ট্র দেশ তখন বহু ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র রাজ্য বা জনপদে বিভক্ত ছিল এবং প্রত্যেক জনপদের একজন করিয়া সুর্দার বা নেতা ছিলেন। ইহাকে রাজা বলিলেও ক্ষতি নাই, তবে মধ্যযুগের রাজার স্থায় ইহার যথেচ্ছাচার