পাতা:মহারাষ্ট্র-নৃপেন্দ্রকুমার বসু.djvu/১৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চম অধ্যায় জীবন-সন্ধ্যায় চতুর্থ পেশওক্ষ্মী-মাধবরাও পাণিপথের যুদ্ধের ছয় মাস পরেই পেশওয়া বালাজী তংহদ্বয়ে মৃত্যু-বরণ করিলেন । র্তাহার দ্বিতীয় পুত্ৰ সতেরে বংলর বয়স্ক মাধবরাও এই শোকাচ্ছন্ন জাতির নায়ক নির্মাচিত হইলেন। श्वश्रूं निशांग्-मूर्छन् रश्च श्रॆमाह । ऎीशङ्गं পুত্ৰ নাজির জঙ্গের মতি মারাঠাদের সন্ধির ফলে বিজাপুরের অনেকাংশ উাহার অধিকারে আপিয়াছে। কাজেই নিজাম-রাজা বেশ ক্ষমতাশালী হইয় উঠতেছে। ইতঃপূৰ্ব্বে কর্ণাটের মধ্যস্থলে মীর একজন স্থিরাজ একটা গেছে রাজ্যস্থাপন করিয়াছিলেন ; হায়দার আলি নামে মহীশূরের এক মুসলমান কৰ্ম্মচারী উাংরি হিন্দুপ্রভুকে তাড়াইয় দিয়া, নিজেই মুলতান হইয়া বলিয়াছেন। তাহা ছাড়া পূৰ্ব্বকৰ্ণটে আকট নামক স্বানকে কেন্দ্র করিয়া আর একটি ছোট মুসলমান রাজ্য গড়িয় উঠিয়াছিল। এই সকল মুসলমান রাজ্যের কর্তৃত্ব লইয়া ফরাশী ও ইংরাজ বণিকালে রীতিমত টক্কর লাগিয়াছে। পলাশীর যুদ্ধে জয়লাভ করিয়া,ইংরাজ বণিকদলের রাজ্যের লোভ বেশ বাড়িয়।