পাতা:মহারাষ্ট্র-নৃপেন্দ্রকুমার বসু.djvu/২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


श्रृं * চলিতেছিল। তারপর সমগ্ৰ ভাৱন্তে কুষাণবংশীয়দের আধিপত্য লোপের সঙ্গে সঙ্গে, অন্ধুদের হৃতগৌরব কতকটা ফিরিয়া আসিল বটে ; কিন্তু বিখ্যাত সাতবাহন বংশের চিরতরে পতন হইল । ইহার পর প্রায় তিন শতাব্দী পৰ্য্যস্ত মহারাষ্ট্ৰীয় ইতিহাস একেবারে নীরব। তারপর ষষ্ঠ শতাব্দীর মধ্যভাগে মহারাষ্ট্ৰীয় চালুক্যবংশ দক্ষিণপশ্চিমে একটি ক্ষুদ্র রাজ্য গড়িয়া তুলিলেন। ইংরি আপনাকে সূর্যবংশীয় ক্ষত্রিয় বলিয়া পরিচিত করতেন। চালুকগণ প্রতাপশালী হইয়া ক্রমশঃ উত্তরে দক্ষিণে ও পূর্বে উহাদের অধিকার-সীমার বিস্তুার করিতে লাগিলেন । এমন সময় পল্লবদিগের সহিত উীৱদের সংঘর্ষ উপস্থিত হইল। পল্লবগণ পঞ্চম শতাব্দীতেই কৃষ্ণ ও কাবেরী নদীর মধ্যভাগে পূৰ্ব্বসমুত্র, কুল থেম্বিা একটি রাজ্য স্থাপন কর্মিাছিলেন। ইহাদের দুইটি রাজধানী ছিল, একটি পশ্চিমে বাঙাপীনগর বা বাদামী এবং মাটি পূৰ্ব্বে কাজী (মাত্রাঙ্ক শহরের কয়েস্থালৈ ক্ষিণ বর্তমান কষ্ট্ৰীডর)। পল্লবদের সময়েই অনেক বড় বড় দেবমন্দির বাকীতে নিৰ্ম্মিত হয় এবং উৱা অন্যতম মাতীৰ্থ বলিয়া ঘোষিত হয়। যষ্ঠ শতাব্দীর শেষভাগে দক্ষিণ ভারতের প্রাধাম্বা লীয় চালুক্য ও পল্পর্বদিগের মধ্যে মারামারি বেশ পাকাইয়৷ উঠিল। চালুক্যরাজ বিক্রমাদিত্য পরবদিগের পূর্বদিকস্থ রাজধানী কাঞ্চনগরী আক্রমণ ও অবরোধ করিয়া বসিলেন। অবশেষে পল্লবগণ রাজধানীর সিংহদরজা খুলিয়া দিয়া, ঠাহার নিকট আত্ম-সম্পর্শ করেন। কিন্তু ধৰ্ম্মপ্রাণ বিক্ৰম কাঞ্চীর