পাতা:মহারাষ্ট্র-নৃপেন্দ্রকুমার বসু.djvu/২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


স্বছায়া? १९ উহাদের অহিংস নীতির বাড়াবাড়িই বোধহয় রাষ্ট্ৰীয় অধঃপত নের অন্ততম কারণ ৫ । এদিকে কল্যাণের আর একদল চালুক রাষ্ট্রকূটদের সহিত ক্রমাগত যুদ্ধ করতে করিড়ে, ঠাহীদের রাজ্য-সীমা একটু একটু করিয়া বড়াইয়। যাইতে লাগিলেন। অবশেষে ১৭০ কৃষ্টাব্দে দ্বিতীয় তৈলঙ্কালুক্যের নিকট রাষ্ট্রকূটগণ একেবারে পরাভূত হইয়া, ইতিহাসের রঙ্গমঞ্চ হইতে চিরকালের জন্য সরিয়া পড়িলেন + । এই সময়ে গোঁড়ঙ্গে বিখ্যাত সম্রাট, মহীপাল রাজত্ব করিতেছিলেন। এই নূতন চালুক্য কশের সর্বশ্রেষ্ঠ রাহু ছিলেন তীিয় বিক্রমাদিত্য। তিনি প্রায় পঞ্চাশ বৎসর কাল রাজত্ব করিয়া দিয়াছেন (১৯৭৬-১৯২৬ খৃঃ অঃ)। তিনি একবার তৃতীয় গ্রিংপালের রাজত্ব-সময়ে, গৌড়রাজ্য আক্রমণ করিয়া রাদেশ অধিকার করিয়াছিলেন। তাহ ছাড়া, তিনি উত্তর ও দক্ষিণ ভারতের কতকগুলি রাজ্য জয় করিয়া লন। কিন্তু এই অধিকার বেণী দিন স্থায়ী হয় নাই। পরবর্তী চালুকরাজগণ ক্রমশঃ তাল হয় পড়েন এবং দ্বাদশ শতাব্দীর শেষভাগে ইহাদের প্রাধান্য লোপ পায় ।

  • ভারতবর্ষের ইতিহাস-হরপ্রসাদ শাস্ত্রী,৬৭ পৃষ্ঠা। + “Early History of the Ieccan”-Bhandarkar P. 79