পাতা:মানিক গ্রন্থাবলী (প্রথম খণ্ড).pdf/২৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


SR JOS8 করার বদলে কিছু কিছু কাজ আর তাগ স্বীকার করে হাসি মুখে । পথের মানুষকে আজ তার সুখী মনে হম্ ।। তাব মতো ওদের কারো জীবনেও বিরামীন প্ৰতিকারাচীন সংঘর্ষ স্থায়ী রোগযন্ত্রণার মতো একটানা অশান্তি এনে দিয়েছে। কিনা-প্ৰতিদিনের এই প্রশ্ন আজি যেন মন থেকে মুছে গিয়েছে। একটা কথা অবশ্য প্রমথ জানে । নিজের কাছে এ DDB DBD BBGD BB S S SBDBDDO YDS TDBDBDB হাস্কা হয়ে যাবার কারণ অন্য কিছুই নয়, গীতার হাত থেকে মুক্তি পাবার কল্পনাই তাকে এভাবে ভয়মুক্ত করে দিয়েছে। 0SDDtDDDS D BDDBKS DBDB BBS S S BBBS S DBBDB DDD S মুক্তিলাভের এ পথ বেছে নেবার আরেকটা দিকও তো আছে। যত অসহাই হোক গীতাকে জীবন থেকে ছোটে ফেলে রেহাই পাবার যত সহজ, সাধারণ, হীন পথই খোলা থাক, ওভাবে সে মুক্তি পাবারও চেষ্টা করে নি, BDBDD MDBBB BYSD DDDDS BBD S S S BD S প্ৰেমিকের কৰ্ত্তব্য সে পালন করে গেছে বরাবর । গীতাকে ভাল করে জেনেশুনেও ওকে ভালবেসে বিয়ে করার ভুলটা তার, সে ভুলের জন্য গীতাকে শাস্তি দিয়ে মনের জ্বালা জুড়োবার মতে। অন্যায় সে কোনদিন করে নি। এ উপায়ের কথা না ভাবলে, এ সুযোগ না পেলে, চিরদিন সে এই আত্মবিরোধাভাবা বন্দীর জীবনটাই যাপন করত। এ গৌরব সে দাবী করতে পারে । বাড়ীতে ঢাকতে প্ৰথমেই চোখে পড়ল ছোটভাই সুমথের কচি ছেলেট, বারান্দায় এই অবেলায় ঘুমিয়েছে। বিয়ের দু'বছরের মধ্যে একটি ছেলে হয়েছে সুমথের, চারবছরের বেশী হয়ে গেল গীতাকে সে একটি সন্তানের মা হতে রাজী করাতে পারল না ! মনে মনে সঙ্কল্প আরও দৃঢ় হয়ে ቕ፲፬ (ጭ ]ጓICo፲፪ | গীতা বাড়ী ছিল না। নতুন কিছু নয়, আপিস থেকে বাড়ী ফিরে গীতার সঙ্গে তার কদাচিৎ দেখা হয়। জামাকাপড় ছেড়ে মান করার পর সুমথের স্ত্রী তাকে চা জলখাবার দেয়, তার গন্তার মুখ দেখে মমতা অসুভব করে। এক সময় সুমথকে সে বলে, "দাদার মুখ বড় ভার দেখলাম।” BB SJBDDLDD DDD BDBESSSA Sa DBDLDDSS S S বলে সহ করে, আমি হলে-” “কী করতে ?” 'तून क८द्ध ऊांछिव निडाभ ।' “পারতে না। তুমিও তো দাদার ভাই।’ সুমথ মুখে একটু হাসে, মনে কথাটা মানে না। সে যে দাদার ভাই এ যুক্তিটাতে নয়, সে হলেও গীতাকে দূর করে তাড়িয়ে দিতে পারত না, স্ত্রীর এই ঘোষণাকে। রাত প্ৰায় আটটার সময় গীতা ফিরে আসে। খুব মানিক-গ্ৰন্থাবলী জমকালো একখানা শাড়ী সে পরেছে, মুখে-চোখে আর চলনে তার উপচে পড়েছে খুলীর ভাব। “কোথায় গিয়েছিলাম জানো ?’ বলতে বলতে সামনে এগিয়ে এসে প্ৰমথেৰ মুখ দেখে সে মুখ বাকায়।-‘হু, রাগ করেছে তো ! “না, রাগ করি নি। একটা কথা তোমার ওপর আর কোনদিন রাগ করব না।” “তার মানে ?” 'কাপড় বদলে শান্ত হয়ে বোসে, বলছি।” 'ও বাবা । তবে তো গুরুতর কথা ।” কিন্তু তার না-বলা কথাকে বিশেষ গুরুত্ব যে সে দেয় নি। প্রমথ তা বুঝতে পারে। গীতা সম্ভবত ধরে নিয়েছে, সে কিছু উপদেশ ঝাড়বে, কোন কথা ব্যাখ্যা করে বুঝিয়ে দেবার চেষ্টা কববে। গীতার ‘ফিবে আসতে আধা ঘণ্টা সময লাগায় এই অনুমানটাই সত্য মনে হয়। নতুন কিছু তার বলবার আছে মনে কবলে এতিক্ষণ কৌতুহল प्रश्न कcद्ध था -1 \ठा °icक नस्टल श्ऊ भ! ! উপদেশ দিযে বুঝিযে গীতাকে বদলে ফেলার চেষ্টার মধ্যে যে বোকামি ছিল আজ প্ৰমথের কাছে তা স্পষ্ট হয়ে ওঠে । কতখানি হতাশ আবি নিরুপায় বোধ থেকে গীতাকে ওভাবে সংশোধন করার উপায়টা সে অন্ধের মতো আঁকড়ে ধরেছিল, ভাবতে গিয়ে আসন্ন মুক্তির রূপটাই তার কাছে আরও বিরাট হয়ে ওঠে । আবার তার কথা! শুনে গীতা কেমন চমকে যাবে ভেবেও প্ৰমর্থ বেশ আমোদ অনুভব করে । গীতা ফিরে এসে একটু এদিক-ওদিক ঘুরে টেবিল থেকে রঙীন মলাটের একটি বই তুলে নিয়ে শোবার ঘরের দিকে পা বাড়ায়। প্ৰমণ যে তাকে বিশেষ কিছু বলবে বলেছিল, D BD BeEEDDBDB DBBD SDBYSDDD S SDBD DDD SS S BBD DBBDDBD গিয়ে প্রমথ চুপ করে যায়। মিনিট পনের সে চুপ করে বসে ভাবে । তারপর শান্তভাবেই শোবার ঘরে যায়। "তোমায় যা বলছিলাম।” গীতা তার বিছানায় শুয়ে পড়ছিল। বই নামিয়ে হাই তুলে উদাসভাবে বলে, “কী বলছিলে ?” প্রমথ কাছে গিয়ে বিছানাতেই বসে। গুছিয়েই সে সব কথা বলে, স্পষ্ট জোরালো ভাষায়। কিন্তু গীতার বিশেষ চমক লেগেছে মনে হয় না। কথাটাকে সে তেমন গুরুতর মনে করেছে। কিনা সে বিষয়েও প্ৰমথের সন্দেহ জাগে । “এই বুঝি তুমি রাগ কর নি ?” ‘রাগের কথা কী হ’ল ?” “আমার জন্যে জেলে যাবে বলছি, অথচ তুমি রাগ কর কবে ধমকে মেরে বলবে তোমার রাগ হয় নি।” “তোমার জন্যে জেলে যাচ্ছি না। গীতু।” “তবে কী জন্তে ? স্বদেশী করে জেলে যাবার জন্যে বুঝি ख्दछिनाग ! ft