পাতা:মিবার-গৌরব-কথা - হেমলতা দেবী.pdf/৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

রাণা সঙ্গ বা সংগ্রামসিংহ।

 মিবারের রাণা মুকুলজীর পুত্র রাণা কুম্ভ মিবারের ইতিহাসে অত্যন্ত প্রসিদ্ধ। তিনি যেমন বীর, তেমনই বিবিধ রাজগুণে বিভূষিত ছিলেন। তাঁহার কীর্ত্তিকথা মিবারের ইতিহাসে চিরস্মরণীয় হইয়া আছে। রাণা কুম্ভ সম্বন্ধে একটি অতি আশ্চর্য্য গল্প আছে। তিনি একদা কোন বিশেষ যুদ্ধে জয়ী হইয়া পরদিন হইতে প্রত্যহ কোন আসনে উপবেশন করিবার পূর্ব্বে আপনার তরবারি মস্তকোপরি তিনবার প্রদক্ষিণ করিতেন। তাঁহার জ্যেষ্ঠপুত্র রায়মল্ল প্রতিদিনই পিতার এই কার্য্যটী দেখিয়া মনে মনে অতি বিস্মিত হইতেন। একদিন কৌতুহলী হইয়া পুত্র জিজ্ঞাসা করিলেন, “পিতঃ! প্রতিদিনই যে আপনি আসন পরিগ্রহ করিবার পূর্ব্বে মস্তকের চারিদিকে তিনবার তরবারি প্রদক্ষিণ করেন তাহার অর্থ কি?”

 এই প্রশ্ন শুনিয়াই রাণা অগ্নিবর্ণ হইয়া উঠিলেন এবং পুত্রকে তৎক্ষণাৎ মিবার রাজ্য হইতে নির্ব্বাসিত করিয়া দিলেন। বীরবর রাণা কুম্ভ অন্যতম পাষণ্ড পুত্রের হস্তে জীবলীলা সম্বরণ করেন। কুম্ভের মৃত্যুর পর রায়মল্ল