পাতা:মুকুট - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

মুকুট

১৭

যুদ্ধে যদি সংকট উপস্থিত হয় তাহলে তিনি তাঁর সৈন্য নিয়ে আমাদের সাহায্য করতে পারবেন।’ যুবরাজের অনুরোধেই তো ইশা খাঁ তোমার প্রস্তাবে রাজি হলেন, নইলে তাঁর বড়ো ইচ্ছে ছিল না। যাই হোক, কিন্তু আমি তোমার আলাদা থাকবার মতলব ভালো বুঝতে পারছি নে।

 রাজধর। ওঁদের সঙ্গে একত্রে মিলে যুদ্ধ ক’রে আমার লাভ কী——জিত হলে সে-জিতকে কেউ আমার জিত বলবে না তো।

 ধুরন্ধর। তবু ভুলেও কেউ তোমার নাম করতে পারে। কিন্তু তফাতে বসে থাকলে যুদ্ধে জয় হলেও তোমার অপযশ, হারলে তো কথাই নেই।

 রাজধর। আমার এই পাঁচ হাজার সৈন্য নিয়েই আমি যুদ্ধে জিতব এবং আমি একলাই জিতব।

দূতের প্রবেশ

 রাজধর। কী রে, যুদ্ধের খবর কী?

 দূত। আজ্ঞে, লড়াই তো সমস্তদিন ধরেই চলছে কিন্তু এ পর্যন্ত এঁরা শত্রুদের ব্যুহ ভেদ করতে পারেন নি। সূর্য অস্ত যাবার আর তো বেশি দেরি নেই— অন্ধকার হয়ে এলে বোধ হয় যুদ্ধ আজকের মতো বন্ধ রাখতে হবে।