পাতা:মুক্তি-পথে - গোপীপদ চট্টোপাধ্যায়.pdf/৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মুক্তি-পথে \oа [ সমবেত শ্রোতৃমণ্ডলীর গালে স্নে| লাগাইয়া দিল ] এবারে আর একটা মাত্র জিনিষ আপনাদের দেখিয়ে আমার । তা শেষ করব। মনে রাখবেন, বক্তৃতার দিন অনেক দিনই চলে গিয়েছে। এ স্বদেশী যুগ। প্রাণে প্রাণে অনুভব করতে হবে আমাদের গলদ কোথায় ! এই জিনিষটা হচ্ছে বিশুদ্ধ ‘গণ্ডার মার্ক র্কাচ কৃষ্ণ তিল তৈল। এ অতি বিশুদ্ধ তেল । তিসি নয়—সরষে নয়। ১২০২ টাক মণের তিল। সুদূর বরিশাল জেল হতে আমদানী বিশুদ্ধ তিল তৈল। এতে ভেজাল নেই। শুধুই তিল। আপনার জানেন মুড়ি আর ভুড়ি—এই দু'টোকে শাস্ত রাখতে পারলেই দুনিয়াটাকে দেখবেন রঙীন চোখে । এই তিল তৈল নিয়মিত ব্যবহারে মস্তিষ্ক ভাল থাকবে। শুভ্ৰ কেশ কৃষ্ণ হবে। পুরাতন টাকে নুতন ঘন কৃষ্ণ কেশদাম গজিয়ে উঠবে। এই তৈলের শক্তি অসাধারণ । ফলেন পরিচয়তে। [ কয়েকজন কৃষক নীহার বাবুর দোকানে উপস্থিত ] ১ম হিন্দু কৃষক—হাদে সাত বছর ছাওয়ালের একটা সামিজ দ্যাবেন ত দোহানদার ! নীহার—ছেলের ত সেমিজ হয় না। ১ম হিঃ কৃঃ—ঠিক বল্যাছ দোহানদার। আমারই ভুল। একটা কামিজ দ্যাহাও ত ! নীহার—কি রংয়ের হবে ? ১ম—হিঃ কৃঃ—এই ধলা রংডা বাদ দিয়ে। [ একটা লাল রংয়ের শার্ট দিলেন ] এই বেশ রুঙা হয়েচে । হাদে, এর দাম ন্যাবানে কত ? নীহার—দাম ছয় আনা ।