পাতা:মুক্তি-পথে - গোপীপদ চট্টোপাধ্যায়.pdf/৪৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

ड्रडौश झ्धु বঙ্গীয় কৃষ্টি-সাধন সমিতির কার্য্যালয় সরোজ, দিলীপ, বিপিন বাবু ] সরোজ—তোমার বিভাগের অবস্থা কেমন ভাই দিলীপ? দিলীপ—বিশেষ সুবিধের বলে মনে হচ্ছে না। বিপিন—সোজা কথায় বল, ষোল আনাই পণ্ডশ্রম। শতকর। একশো ভাগই ব্যর্থ। মক্কেল মোটেই জুটুছে না। সরোজ–ভাল কথা মনে পড়েছে। ও বছর যে M. A. পাশ । ভদরলোক আমাদের সমিতিতে এসেছিল, তাকে দেখি প্রায়ই হাওড়ার হাটে ঘোরাফেরা করতে। চেহারাও বেশ যেন একটু চিকুনাই দিয়েছে। দিলীপ—ত হতে বাধ্য। আমি লক্ষ্য করেছিলাম তার ভিতর কবিত্ব-শক্তি লুকিয়ে ছিল। এখন সেই শক্তির বিকাশ পেয়েছে। তাই হাসি ফুটে উঠেছে তার মুখে। আর বাহুতে পেয়েছে সে অসীম কৰ্ম্মশক্তি । সরোজ—সে হোলো দর্শন শাস্ত্রের এম-এ, আর হয়ে গেল কবি ! কী চমৎকার তোমার অনুমান করবার ক্ষমতা ! বিপিন—না হে না, ভাষাই তাকে মানুষ করেছে। সে দর্শনের হেঁয়ালী ছেড়ে সহজ সরল—একেবারে ষোলো আনা গ্রাম্য ভাষা শিখে শতকরা একশো ভাগ বাবুগিরি ছেড়ে নেমে পড়েছে ব্যবসায়। সে আমার বিভাগেরই সভ্য হবার উপযুক্ত। আমি আজন্ম যে সাধনা করে এসেছি, তার সিদ্ধি দেখতে পেয়েছি ঐ দর্শন শাস্ত্রের M. A. র মধ্যে।