পাতা:মুক্তি-পথে - গোপীপদ চট্টোপাধ্যায়.pdf/৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মুক্তি-পথে 8○ বিপিন-বিদ্রোহী, নেমকহারাম ! তুমি আমাদের সমিতির ষোলো আনা নিয়ম লঙ্ঘন করেছ। আজ থেকে সমিতির খাতা থেকে তোমার নাম কাটা গেল । দিলীপ—সেই ভাল। তুমি তোমার ভাষার সংস্কার নিয়ে থাক । সরোজ ভায় "তৈলাধার পাত্র” কি “পাত্রাধার তৈল” নিয়েই থাকুক। চল ভাই প্রকাশ, আজ পুরুষকারের জয়ের দিন এসেছে। [ উভয়ের প্রস্থান ] সরোজ-এ যে সত্যি সত্যিই চলে গেল, বিপিন ভায় । বিপিন—কোথায় যাবে বাছাধন ? নির্ঘাত আবার ফিরে আসবে দেখে নিও। সরোজ–তা যদি সে নাই ফিরে, তাতে ক্ষতি কি ? আমাদের অবস্থাটাও একবার ভেবে দেখ। ঘরের খেয়ে আর বনের মোষ কতদিন তাড়াবে ? বিপিন—ঠিক বলেছ ভাই, ষোলো আনাই ঠিক । এতদিন তোমাকে কিছুইত বলিনি। বাড়ী যাওয়া আমার এক রকম দায় হয়ে পড়েছে। সরোজ—বাবা অামায় বলেন এত বয়স হয়েছে, আর কতদিন বসে বসে খেতে দেবেন ! বিপিন—আমারও ঠিক সেই অবস্থা ভাই। আজই হয়ত গিয়ে দেখবো বাড়ীর কপাট বন্ধ,—প্রবেশ নিষেধ। ষোলো আনাই নিষেধ । সরোজ–তা হলে কি ব্ৰহ্ম মিথ্যা, আর জগৎই সত্য ? বিপিন—না-না, ওসব চিন্তা আর করে দরকার নেই ভাই। ব্ৰহ্মও সত্য আর জগৎও ষোলো আনা না হোক, অন্ততঃ আট আন সত্য। জগতে ষোলো আনা ভদ্রভাবে বাচতে হলে যতটুকু অর্থ উপার্জনের