পাতা:মুর্শিদাবাদের ইতিহাস-প্রথম খণ্ড.djvu/৪৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

সপ্তম অধ্যায়। মুর্শিদকুলী খা । যে সৈয়দ ভ্রাতৃদ্বয়ের সাহায্যে ফরশ্বসের ভারতসাম্রাজ্য লাভ করিয়াছিলেন, আবার তাঁহাদেরই নিগ্রহে তিনি সম্রাট মহম্মদ সাহ হিন্ত ও নিহত হইলে, রফে-উল- . দার্জৎ ও রফে উদ্দৌলা নামক দুইজন বাদসহ- মদিনত, বংশীয় যুবক সৈয়দগণের ক্রীড়নকম্বরূপে কিছু- প্রাপ্তি। কাল ময়ুর-সিংহাসনে উপবেশন করিয়া প্রাণত্যাগ করিলে, উক্ত সৈয়দগণেরই অনুগ্রহে ১৭১৯ খৃঃ অব্দে রোসেন আক্তর ভারত সাম্রাজ্যের একাধীশ্বর হইয়া উঠেন। এই রোসেন আক্তর মহম্মদ সাহ উপাধি ধারণ করিয়া ইতিহাসে সুপ্রসিদ্ধ হইয়াছেন। নবাব মুর্শিদকুলী খ। আপনার চিরন্তন প্রথানুসারে বাঙ্গলার রাজস্বের সহিত বহুমূল্য দ্রব্য উপঢৌকন প্রেরণ করিয়া নবীন বাদসাহের মনস্তুষ্ট করিলেন, ও দরবার হইতে তিন প্রদেশের সুবেদারী ও দেওয়ানী স্থায়ী করিয়া লইলেন। তাহার পর বাদসাহ কর্তৃক সৈয়দগণের নিগ্ৰহ সংসাধিত হইলে, কুলী খাঁ পুনৰ্ব্বার বৎসরের রাজস্বের সহিত উপহার পাঠাইয়া বাদসাহের নিকট এক সহানুভূতিস্থচক আবেদন প্রেরণ করেন। ইহাতে বাদসহ তাহার প্রতি অত্যন্ত প্রীত হন ও বৎসর বৎসর যথাসময়ে রাজস্ব প্রেরণ করায় দরবারে তাহার যথেষ্ট প্রতিপত্তি হইয়া উঠে ।