পাতা:মুর্শিদাবাদ কাহিনী.djvu/১৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জাফরাগঞ্জ

 জাফরাগঞ্জ সিরাজের বধ্যভূমি,—বাঙ্গলা, বিহার ও উড়িষ্যার স্বাধীনতার সমাধি। এই স্থানের ভূমি বিশ্বাসঘাতকের তরবারির আঘাতে কলুষিত হইয়াছিল; তাই যেভবনে সেই শোচনীয় হত্যাকাণ্ড সম্পাদিত হয়, মুর্শিদাবাদবাসিগণ অদ্যাপি তাহাকে “নেমক্‌হারামী দেউড়ি” কহিয়া থাকে। যাহার অন্নে, যাহার গৃহে প্রতিপালিত হইয়া, বিশ্বাসঘাতকগণ সংসারে সুপরিচিত হইয়াছিল, আপনাদের বাসভবনে তাহারই রক্তপাতের দ্বারা কৃতজ্ঞতার পরিচয় প্রদান করিয়াছিল! যে-হতভাগ্য প্রত্যেকের পদতলে বিলুষ্ঠিত হইয়া প্রাণভিক্ষা চাহিয়াছিল, পাশবিক হত্যাকাণ্ডে তাহার সে প্রার্থনা পূর্ণ করা হয়। বসুন্ধরা এই রক্তপাত কিরূপে ধারণ করিয়াছিলেন। বলিতে পারি না; বোধহয় তিনি সে রক্তপ্রবাহ নিজ-অঙ্গে মিলাইতে পারেন নাই; বিশ্বাসঘাতক-কর্তৃক পাতিত রক্ত তাহার পবিত্র অঙ্গে কদাচ মিশিয়া যাইতে পারে না; অথবা তিনি সর্বংসহ-সমস্তই সহ্য করিতে পারেন। যে-গৃহে সেই শোচনীয় হত্যাকাণ্ড সংসাধিত হইয়াছিল, সে গৃহ চূর্ণ-বিচূর্ণ হইয়া অণুপরমাণুতে মিশিয়া গেলেও তাহার স্থানের লোপ হয় নাই। আজিও সে স্থানে উপস্থিত হইলে, বিশ্বাসঘাতকগণের প্রতি আন্তরিক ঘৃণা ও হতভাগ্য সিরাজের প্রতি সহানুভূতির উদয় হইয়া থাকে। জাফরাগঞ্জ আবার বঙ্গের শেষ নবাব-নাজিমগণের সমাধিভবন। এই স্থানে নবাব জাফর আলি খাঁ বা মীরজাফর হইতে তদ্বংশীয় অন্যান্য নবাব-নাজিমগণ চিরনিদ্রায় নিদ্রিত আছেন। জাফর আলির প্রিয়তমা ভার্যা মণিবেগম ও বব্বুবেগমও সেই সমাধিভবনে শায়িত। এই রাজ-সমাধিভবন মুর্শিদাবাদের একটি দর্শনীয় স্থান। সিরাজের বধ্যভূমি ও নবাব-নাজিমগণের সমাধিভবনের জন্য জাফরাগঞ্জ ঐতিহাসিকের নিকট নিতান্ত উপেক্ষার সামগ্রী নহে।

 জাফরাগঞ্জ ভাগীরথীর পূর্ব তীরে ও মুর্শিদাবাদ কেল্লা হইতে প্রায় অর্ধক্রোশ উত্তরে অবস্থিত। মীরজাফর মসনদে বসিবার পূর্বে জাফরাগঞ্জেই অবস্থিতি করিতেন। তাহার নামানুসারে, অথবা মুর্শিদাবাদের স্থাপয়িত। মুর্শিদকুলী জাফর খাঁর নামানুসারে অথবা অন্য কাহারও নামানুসারে জাফরাগঞ্জের নামকরণ হইয়াছে, তাহা বলিতে পারা যায় না। জাফরাগঞ্জের নবাব-বংশীয়ের এক্ষণে যে-প্রাসাদে বাস করিতেছেন, সেই প্রাসাদই মীরজাফরের বাসস্থান ছিল। জাফর আলি খা ঁনবাব হইয়া প্রথমতঃ সিরাজউদ্দৌলার হীরাঝিলে বা মনসুরগঞ্জের প্রাসাদে বাস করিয়াছিলেন; পরে মুর্শিদাবাদ কেল্লামধ্যে আলিবর্দী খাঁর প্রাসাদে আসিয়া বাস করেন।

 নবাব হইয়া তিনি স্বীয় জ্যেষ্ঠপুত্র মীরণকে জাফরাগঞ্জের প্রাসাদ প্রদান করেন। তদবধি মীরণের বংশধরেরা জাফরাগঞ্জের প্রাসাদেই বাস করিতেছেন। জাফরাগঞ্জ মুর্শিদাবাদ নগরের মধ্যস্থলে অবস্থিত। অর্মে সাহেব মীরফাফরের প্রাসাদকে তৎকালীন