পাতা:মেদিনীপুরের ইতিহাস প্রথম ভাগ.djvu/৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

ঐতিহাসিক-বিবরণ।

তৃতীয় অধ্যায়।

প্রাচীন কাল।

 ভারতবর্ষের কোন প্রদেশেরই পূর্ব্বতন ইতিহাস সংগ্রহ করা প্রাগৈতিহাসিক দুরূহ ব্যাপার—বিশেষতঃ বঙ্গদেশের; অতএব বলা বাহুল্য যে, ক্ষুদ্রাদপি ক্ষুদ্র মেদিনীপুর জেলার প্রাচীন ইতিহাসও তিমিরাবরণের অন্তরালে অবস্থিত। প্রাগৈতিহাসিক যুগে মেদিনীপুর জেলার অবস্থা যে কিরূপ ছিল, তাহা এক্ষণে নির্ণয় করা অসম্ভব। বঙ্গদেশ পলিমাটর দেশ; ভারতবর্ষের অন্যান্য দেশের তুলনায় ইহা বয়সে নবীন। তবে ইহার উত্তর, দক্ষিণ-পূর্ব্ব ও দক্ষিণ-পশ্চিম সীমান্তস্থিত পার্ব্বত্য প্রদেশগুলির ভূমি অতি প্রাচীন। মেদিনীপুর জেলার পশ্চিম অংশের কিয়দংশও পূর্ব্বোক্ত দক্ষিণ-পশ্চিম প্রদেশের অন্তর্গত। ১৮৮৩ খৃঃ অব্দে ঐ প্রদেশের বিনপুর থানার অন্তর্গত ঝাটিবনী বা শিলদা পরগণার তামাজুড়ী গ্রামের নিকটে একটি ক্ষুদ্র পাহাড়ের পাদদেশে একখানি তাম্রনির্ম্মিত কুঠার-ফলক আবিষ্কৃত হইয়াছে। উহা এক্ষণে কলিকাতা মিউজিয়ামে দেখিতে পাওয়া যায়। স্বনামখ্যাত ঐতিহাসিক শ্রীযুক্ত রাখাল দাস বন্দ্যোপাধ্যায় মহাশয় তাঁহার প্রসিদ্ধ গ্রন্থ বাঙ্গালার ইতিহাসের প্রথম ভাগে উহার একখানি ছবি দিয়াছেন।