পাতা:মেয়েলি ব্রত ও কথা - পরমেশপ্রসন্ন রায়.pdf/১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হরিষ-মঙ্গলচণ্ডী বঁাবে না । বামুন ঠাকর গ্রী বচোন, আচ্ছ। আর এক কাজ করু। এৰায় আদ্যুৎ সাপ পাঠাতে হবে। এবারে তোমার মেয়ের বাড়ী তৱ পাঠিয়ে দাও। সন্দেশের হাঁড়িতে সন্দেশ না দিয়ে দুটো কেউটে সাপ দাও । তোমার ছোট ছেলে মাথায় ক’রে তত্ব নিয়ে যাক । হয়, রাস্তায় তোমার ছেলের, নইলে মেয়ের বাড়ীতে কারুর একটা ভাল-মন্দ অবিশুি ঘটবে। তখন তুমি মা হয় করিও । গয়লার মেয়ে তাই করেন। তঁর ছোট ছেলের মাখায় হাড়ি তুলে দিলেন। বৈশাখ মাস দারুণ রোদ ; এক পুকুরু-পাড়ে ছাড়ি রাখিয়া গয়লার ছেলে মান করিতে মামিল। তখন মা মঙ্গল চণ্ডী মনে ভাবলেন, আমার ভক্তের দুৰ্ম্মতি হয়েছে। তবে যদিন আমার ব্রত করবে তদিন ওকে। চোকের জল কিছুতেই ফেলতে দেবে না। এই ভেবে তিনি সাপ দূর করে সমস্ত হাঁড়ি সোণা দিয়ে পুরে দিলেন। ছেলেটীর ৰক্ত খিদে পেয়েছিল। একটু সন্দেশ নিয়ে জলযোগ করতে দোঙ্ক কি, এই ভেবে সে হাড়ি খুলে দেখে, সবই সোণ ! আশ্চৰ্যৎ হয়ে সে মনে কল্পে, মা দিদিকে গঙ্গনার জন্যে এত সোণা দিয়েছেন তা ভালোই ; তবে কুটুম্ব বাড়ী যাচ্চি, খাবার সামগ্ৰী DD BDD DDDS DBB DDSS iBD BDB DBDBB BB DB নিয়ে বাজার থেকে দই, সর্দেশ, মাছ, দুধ, পঞ্চাশ জন মুটের যাখায় দিয়ে ভগিনীর বাড়ী গেল।. কুটুম্বোরা এত সোণা ও জন্ধের জিনিস দেখে আশ্চৰ্য্য হয়ে ছেলেটীরা খুব সমাদর কন্নে। "এদিকে গয়লার গিরি এলো চুলে উচুনীচু স্থানে দাড়িয়ে প্রস্তুত ফুল্পে আছেন, যেই আঁর ছোট ছেলের, মেয়ের কি জামাইয়ের .কুসুৱচনী পাবেন আর * অমনি চিৎপাত হয়ে শোকে প্রাণী,