পাতা:মেয়েলি ব্রত ও কথা - পরমেশপ্রসন্ন রায়.pdf/৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


se “আশাকরি গ্রন্থকারের সংগ্রহ অধ্যবসায় পাঠকদিশ্বের নিকট হইতে সমাদর লাভ করিয়া স্বদেশের অন্তঃপুরে নূতন নুতন সন্ধান ও আবিষ্কারে সার্থক হউক।” ?

  • শিক্ষা ও সংসৰ্গ দোষে পল্লীগ্রামের ব্ৰতাচরণ ক্রমশঃ বিলুপ্ত হইবার সম্ভাবনা হইয়াছে। দোল দুর্গোৎসব প্রভূতি ব্যয়সাধ্য ব্যাপার। প্ৰতিগুহে অনুষ্ঠিত হয় না । পারিবারিক ক্রিয়াকাণ্ড প্ৰতিনিয়ত সঙ্ঘটিত হয় না । অপিচ, সঙ্গতিপন্ন ব্যক্তিগণ সহরে বাস করেন এবং সহুরেই তঁহদের বিবাহোৎসব সম্পন্ন হয়। এমত অবস্থায় বারব্রত ও পাৰ্ব্বণাদি বিদূরিত হইলে পল্লীগ্রামের বালক বালিকাদের জীবন, নীরস ও নিরানন্দময় হইয়া উঠিবে। বারব্ৰত বৰ্জন করিলে হিন্দুগৃহে একাদশীয় * নিরস্তু উপবাস ব্যতীত আর কি ধৰ্ম্মানুষ্ঠান রহিয়া যাইবে

তাহাও ভাবিবার বিষয়. ব্ৰতিনিয়ম ও উপবাস অবলম্বনে হিন্দু রমণীগণ শৈশব হইতেই গুরুভক্তি, ধৰ্ম্মে বিশ্বাস, গৃহধৰ্ম্মে অস্থা ও ইন্দ্ৰিয় সংযম প্রভৃতি সংগুণ শিক্ষা ও৭ অভ্যাস করিয়া থাকেন। অধুনা ইউরোপে যোদ্ধাপ কিণ্ডার-গার্টেন প্ৰণালী দ্বারা বিদ্যাশিক্ষাদানের প্রথা প্ৰবৰ্ত্তিত হইয়াছে, আমাদের দেশে সেইরূপ কৌশলে স্বালিকাগণ স্মরণাতীত । কাল হইতেই ‘বােরত্ৰত” পদ্ধতিক্ৰমে ধৰ্ম্মনীতি শিক্ষা- ?