পাতা:মেয়েলি ব্রত ও কথা - পরমেশপ্রসন্ন রায়.pdf/৮৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


छहै उम्रैि - ዓ(ሉ হইয়া গেল। রাজা রাণীকে পেয়ে প্ৰথমে খুব সন্তুষ্ট হলেন বটে, কিন্তু তঁকে কিছুতেই ব্রত করতে দিলেন না। অনেক দিন ব্ৰত না করাতে রাণীও ব্ৰত ভুলিয়া গেলেন । সে দিন থেকে মা লক্ষ্মীও রাজবাড়ী ত্যাগ করলেন। রাজার হাতীশালে হাতী মলো, ঘোড়াশালে ঘোড়া মলো ; দারুণ রোদে শস্য পুড়ে গিয়ে দেশে দুর্ভিক্ষ হলো। রাজা ভাবলেন কি কুক্ষণে আমি এই বনবাসিনীকে ঘরে এনেছিলেম । আমার সোণার সংসার ছিল, সবই ছারখার হয়ে গেল। একবার তাড়িয়ে দিয়েছিলেম, ভালই হয়েছিল । আবার অলক্ষ্মীকে ডেকে নিয়ে এসে কি আহাম্মুকি করেছি। রাণী ও তার পেটের ছেলেটা বেঁচে থাকতে আমার কিছুতেই ভাল হবে না । রাজা মন্ত্রীকে ডাকিয়ে বল্লেন, দেখ ভাই তুমিও বনবাসিনী কতে বিয়ে করেছ আমিও তাই করেছি। তবে তোমার এত সুখ সম্পদ কেন, আমারই বা সব উল্টো কেন ? রাণী বেঁচে থাকতে আমার অদৃষ্ট কিছুতেই শান্তি নাই । রাণীর ও তার ছেলের সুন্দর মুখ ও রূপ দেখলে আমি সব ভুলে যাই। আমি নিজ হাতে হত্যা করতে পারবো না ; , জল্লাদের হাতে দিয়ে অপমান করবারও ইচ্ছে নাই। আমি আদেশ দিছি, তুমি এক কাজ কর । রাণীকে ও তার ছেলেকে গোপনে নিয়ে যাও, গোপনে হত্যাসাধন ক’রে আমাকে আন্দের রক্ত দর্শন করাও । তাদের রক্ত দেখলেই আমার শাপ্তিলাভ হবে । যাও, আর দ্বিরুক্তি কুরিও না । S D DBT uBS DDDBB DBDS gBBDB BB S DDD খানিক চুপ ক'রে ভাবতে লাগলেন। পরে বলেন, রাজার