পাতা:মেয়েলি ব্রত ও কথা - পরমেশপ্রসন্ন রায়.pdf/৯৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


菇r悠 बांधेरे उड। অবিবাহিত বালকবালিকার বিশেষতঃ অনুঢ়া কন্যার শুভ বিবাহ কামনা করিয়া কুলবতীগণ অগ্রহায়ণ মাসের প্রতি রবিবারে সায়াহ্নে এই ব্ৰতের অনুষ্ঠান করিয়া থাকেন। অনুঢ়া কন্যার ংখ্যা বেশী না হইলে, কিম্বা গৃহে “আরক্ষণীয়া’ কন্যা না থাকিলে দুই এক রবিবারে ব্ৰত না করিলেও চলে। বলাবাহুল্য, ঘরে অবিবাহিতা বালিকা না থাকিলে নাটাই ঠাকুরাণীর প্রতি কেবল অতীতকৃপাজনিত কৃতজ্ঞতা প্ৰকাশের নিমিত্তে কেহ ব্ৰহ্বানুষ্ঠান, BDLDYS D BBD D S sLLLLSYYS DBK DLLDSSYY সংখ্যা অল্প । কিন্তু বৈদ্য ও কায়স্থ সুসমাজে কাহাকেও পুত্রের বিবাহের জন্য বিশেষ বিব্রত হইতে হয় না । অন্তঃপুরের প্রাঙ্গণে পুজাস্থল বিচিত্ৰ আলিপনায় সুশোভিত। হইয়া থাকে। মধ্যস্থলে এক চতুষ্কোণ ক্ষুদ্র “পুকুর” খনন করা DS S BBDD DuD DB SuDBBS BDBDB BBDDD থাকেন। আলিপনার সাধারণ চিত্রের একটী নমুনা। ৮৭ পৃষ্ঠায় দেওয়া গেল । সুনিপুণা মহিলাগণ উদ্ধত সাধারণ, আলিস্পনের কিয়দংশ পরিবর্তন ও পরিমার্জন পূর্বক চতুর্দিকে নানাবিধ সুন্ম কাৰ্যের অবতারণা করিয়া চিত্র-বৈচিত্ৰ্য প্রদর্শন করিয়া থাকেন। সাতটী ছোট কচুপাত লইয়া একটীর উপর আর একটা রাখিবে । যে পাতাটী অপেক্ষাকৃত সকলের বড় তাহা সৰ্ব্বনিম্নে, এইরূপ ਸੈ। সৰ্ব্বাপেক্ষা ক্ষুদ্র তাহা সৰ্ব্বোপরি রাখিব فه তারপর ঐ রূপ ক্রমে সজ্জিত সাতটা তুলসী পত্র কচুপাতা গুলির E.