পাতা:যশোহর-খুল্‌নার ইতিহাস প্রথম খণ্ড.djvu/১০৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

१० যশোহর-খুলনার ইতিহাস। ভরতভায়ন, এবং নিকটবৰ্ত্তী গোরঘোনা গ্রামে একটি ইষ্টকময় স্থানকে এখনও যে ভরতরাজার বাট বলিয়া গল্প আছে, সে ভরতরাজার সহিত এই ভরতরাজার কোন সম্বন্ধ ছিল কিনা, তাহা কে বলিবে ? মাতলা বা ক্যানিং সহর হইতে:দক্ষিণদিকে গিয়া মাতলানদীর পূৰ্ব্বাংশে ১২৯ নং লাটে, হাড়ভাঙ্গা আবাদে ২০২২ বিঘা পরিমিত এক প্রকাও দীঘি আছে। উহার পূর্বদিকে ১৩০নং লাটে একটা ছোট পোস্তবাধা • পুকুর আছে, উহাকে “গলায় দড়িয়ার” পুকুর বলে। ১৮৫০ খৃষ্টাব্দের পূৰ্ব্বে রেভারেও লং সাহেব মাতলার অনতিদূরে টার্ড (Tarda) নামক একটি বড় পটুগীজ বন্দর দেখিয়া ছিলেন। কলিকাতার পূৰ্ব্বে উহাই তাহদের প্রধান বন্দর ছিল। এখন উহার কোন ভগ্নাবশেষ নাই । { মাতলা হইতে সোজা উত্তরে গেলে বালাগু পরগণায় প্রাচীন বালাগু নগরের একটু উত্তরে হাড়োয় নামক স্থানে পীর গোরাচাঁদ বা গোরাই গাজির সমাধিমন্দির দেখিতে পাওয়া যায়। হাড়োয়ার বাৎসরিক মেলা বিখ্যাত। বালাগু। অতি পুরাতন স্থান। এখানে বঙ্গের পঞ্চবিভাগের অন্ততম বাগড়ী বা বালবল্লভীর ; প্রধান নগরী ছিল বলিয়া বোধ হয়। কালীগঞ্জের সন্নিকটবৰ্ত্তী গড় মুকুন্দপুরের অপর পারে অর্থাৎ কালিন্দী নদীর পশ্চিম পারে, ১০১নং লাটে বাকৃড়া নামক স্থানে মৃত্তিকার নিয়ে শিবলিঙ্গ ও মন্দিরের ভগ্নাবশেষ পাওয়া গিয়াছে। ইহার উত্তরে যশোহরের প্রথম জজম্যাজিষ্ট্রেট হেঙ্কেল সাহেব স্বীয় নামে হেঙ্কেলগঞ্জ(হিঙ্গুলগঞ্জ) নাম দিয়া, সুন্দরবন আবাদের জন্য একটি প্রধান নগর স্থাপন করেন। তাহার উত্তরাংশে বাঙ্গালপাড়া নামক স্থানে যে এক সময়ে বহুলোকের বাস ছিল, তাহার প্রকৃষ্ট পরিচয় S B BBBBB BBB BBBBB BBBBBB BB BBBBS BBB BBtttt বলে । t Proceedings of the Asiatic Society of Bengal for December, 1868, f Introduction to Sandhyakara Nandi's Ramcaritaby M. M. Hara Prasad Sastri M. A. Memoir of the Asiatic Society, vol. iii. No է, р, 14» * .