পাতা:যশোহর-খুল্‌নার ইতিহাস প্রথম খণ্ড.djvu/২১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

ᏱᏔ%8 যশোহর-খুলনার ইতিহাস। হইবে।” রাজীব দরিদ্র ব্রাহ্মণ বলিয়া পূজার আয়োজন করিতে ভয় পাইলেন দেখিয়া সন্ন্যাসী বলিলেন “তুমি মৃত্তিক আনিয়া দাও, আমি মূৰ্ত্তি গড়িয়া দিব, তুমি পুষ্পপত্রে পূজা করিবে মাত্র।” তাহাই হইল। সন্ন্যাসী স্বহস্তে কালীমূৰ্ত্তি গড়িয়া দিলেন, রাজীব উপদেশ মত পূজা করিলেন। কিন্তু পূজান্তে সন্ন্যাসীর আদেশমত প্রতিমা বিসর্জন করা হইল না। রাজীব বলিলেন,"কোন অনাদি মূৰ্ত্তি ব্যতীত কি পীঠস্থান হয় ? ” তদুত্তরে সন্ন্যাসী তাহাকে নদীগর্ভে একটা স্থানে ডুব দিয়া যাহা পাওয়া যাইবে, তাহা তুলিয়া আনিতে বলিলেন। রাজীব নির্দিষ্ট স্থানে ডুব দিয়া এক অষ্টাদশভূজা মহিষমৰ্দিনী কালীমূৰ্ত্তি পাইলেন। পরে উহাই তন্ত্রোক্ত আসনে সংস্থাপন পূর্বক পূজাপদ্ধতি প্রচলন করিলেন। তদনন্তর সন্ন্যাসী অন্তহিত হইলেন । 影 রাজীবের একটী কন্যা ও একটী পুত্র ছিল । পুত্রটি পূৰ্ণবয়স্ক হইয়া যোগ শিক্ষাকালে হঠাৎ মৃত্যুমুখে পতিত হয়। কন্যা হইতে রাজীবের দৌহিত্রবংশ ছিল। সে বংশের শেষ বংশধর রামানন্দ চক্ৰবৰ্ত্ত ৪৫ বৎসর হইল লোকান্তরিত হইয়াছেন। রাজীবের জ্যেষ্ঠভ্রাতা শ্রীরামের বংশ আছে। শ্রীরামের দুই পুত্র,— রামদেব ও রামকান্ত। রামদেবের বংশের অধস্তন তারাপদ চক্রবর্তী এবং রামকাস্তের বংশের ১০২ বৎসর বয়স্ক রামবিষ্ণু চক্রবর্তী বৰ্ত্তমান। দুঃখের বিষয় ই হারা পূৰ্ব্বপুরুষের কোন বিশেষ বৃত্তান্ত জানেন না। অষ্টাদশভূজার প্রতিষ্ঠা সম্বন্ধে দ্বিতীর বিবরণ একমলাকান্ত সাৰ্ব্বভৌম-প্রণীত “দ্বিগঙ্গ। রাজবংশম্” নামক সংস্কৃত পুথি এবং ৮মহেশচন্দ্র মুখোপাধ্যায়-প্রণীত “বামুকী-কুলগাথা” নামক বাঙ্গালী পুথি হইতে জানা যায়। উভয় পুথিতে বিশেষ সামঞ্জস্ত আছে। বিশেষতঃ বামুকীকুলগাথায় বহুস্থানে তারিথ দেওয়া হইয়াছে এবং তারিখগুলি ঐতিহাসিক তারিখের সহিত সম্পূর্ণ সামঞ্জস্ত রক্ষা করে। এই পুথি অনুসারে দ্বিগঙ্গা + সেন বংশীয় রুদ্র নারায়ণ বরিশালের

  • এই দুইখানি পুধিই সম্প্রতি (খুলনা ) মঘিয়ার রাজবংশীয় বাসুকীকুল প্রদীপ মুকবি খ্ৰীযুক্ত বাবু হেমচন্দ্র রায় চৌধুরী মহোদয় মুদ্রিত ও প্রকাশিত করিয়াছেন। তিনি আমাদের জন্ত উভয় পুথির প্রতিলিপি প্রস্তুত করিয়া পঠাইয়াছিলেন ।

এই গ্রাম সৰ্ব্বপ্রথমে এই সেনবংশের কুলপুরুষ রমানাথ মহারাজ আদিশূরের নিকট হইতে প্রাপ্ত হন । পুথিতে আছে — · “ভাগীয়ৰ্থী নদীতীরে দীর্ঘ গঙ্গা গ্রাম সৰ্ব্বস্থানে দ্বিগঙ্গা বলিয়া ঘুবে নাম।