পাতা:যশোহর-খুল্‌নার ইতিহাস প্রথম খণ্ড.djvu/২২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

እማe যশোহর-খুলনার ইতিহাস। করেন ৷” * সত্য মিথ্যা জানি না, তবে গঙ্গারিডি যে একটি বিস্তৃত রাজ্য ছিল তাইতে সন্দেহ নাই ; বঙ্গদেশ ইহার অন্তর্গত ছিল। । সুতরাং উপবঙ্গ বা যশোহর-খুলনা এই গাঙ্গরাষ্ট্র বা গঙ্গারিডিদেশেরই অংশ মাত্র। প্লিনি বলিয়া গিয়াছেন, যে গঙ্গাসঙ্গমের পাশ্বে একটি দ্বীপে মেদিগলিঙ্গী জাতি বাস করিত। কেহ কেহ অনুমান করেন যে বুড়ন, বাকৃল, সমৃদ্বীপ প্রভৃতি পূৰ্ব্ববঙ্গের কতকাংশ লইয়া এই দ্বীপ গঠিত এবং মেদিগলিঙ্গী শব্দ মোলঙ্গী শব্দের নামান্তর। ; এই লবণাক্ত সমুদ্রবেষ্টিত দেশ হইতে পূৰ্ব্বকালে যথেষ্ট পরিমাণ লবণ উৎপন্ন হইত। ঐ লবণ প্রস্তুত করিবার জন্য যে একপ্রকার ভাণ্ড ব্যবহৃত হইত, তাহাকে মোলঙ্গা এবং যাহার লবণ প্রস্তুত করিত তাহাদিগকে মোলঙ্গী বলিত। এখন চব্বিশ পরগণা ও খুলনা জেলার দক্ষিণাংশে বহু সংখ্যক মোলঙ্গীর বাস আছে, কিন্তু তাহারা এক্ষণে লবণ প্রস্তুত করিবার অধিকারে বঞ্চিত । পূৰ্ব্বোক্ত গঙ্গারিডি রাজ্যের একটি প্রধান নগর ছিল—গঙ্গে বা গঙ্গারেজিয়া । ইহ সমগ্র ভারতের মধ্যে একটি প্রধান বাণিজ্য বন্দর ছিল। খৃষ্টীয় প্রথম শতাব্দীতে গ্ৰীক ভাষায় লিখিত পেরিপ্লাসে ও গঙ্গেবন্দর হইতে প্রবাল, উৎকৃষ্ট মসলিন প্রভৃতি দ্রব্য বিদেশে যাইত বলিয়া উল্লিখিত আছে। ; আমরা পূৰ্ব্বে বলিয়াছি কলিকাতার দক্ষিণে সমুদ্র পর্যন্ত বিস্তৃত সমগ্র ভূভাগ প্রবাল দ্বীপ নামে পরিচিত। ৭ গঙ্গে বা গঙ্গরেজিয়া এই প্রবাল দ্বীপের অন্তর্গত বলিয়া মনে করি। শ্ৰীযুক্ত পরেশনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় মহাশয় এই গঙ্গারেজিয়া যশোহর জেলার অন্তর্গত বলিয়া অনুমান করিয়াছেন। আমাদের মনে হয় ইহা বর্তমান যশোহর জেলার অন্তর্গত নহে, প্রাচীন যশোর রাজ্যের

  • বঙ্কিম চন্দ্রের “বঙ্গালার কলঙ্ক” প্রবন্ধ, প্রচার ১২৯১, শ্রাবণ। শ্ৰীযুক্ত রজনীকান্ত গুহ কর্তৃক অনুবাদিত মেগাস্থিনের ভারত বিবরণ, ৭২ খৃঃ।

+ তত্ত্বদর্শী খ্ৰীযুক্ত রমাপ্রসাদ চন্দ্র মহাশয় এই রূপই অনুমান করিয়াছেন। "গৌড়রাজমালা, ২ পৃষ্ঠা ।

Pliny, II istoria Naturalis, VI. 21. 8-23, cx*ttf&fùria ef£ fixa^
  • ১৯১ পৃঃ, বাঙ্গালার পুরাবৃত্ত, ১৩৫ পৃঃ । -

§ The Periplus of the Erythraean sea, edited by Professor Wilfre H. Schoff of Philadelphia Museum. ് ৭ ১৩৪ পৃষ্ঠা। } বাঙ্গালীর পুরাবৃত্ত, ১৪৪ পৃঃ