পাতা:যশোহর-খুল্‌নার ইতিহাস প্রথম খণ্ড.djvu/৩৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

&br8 যশোহর-খুলনার ইতিহাস। পৌছিল। তাঁহাই সাহ জালাল নামক * এক দরবেশের আগমনের কারণ। এ সময় সামসুদ্দীন ইলিয়াস বঙ্গের স্বাধীন রাজা, তাহার পুত্র সেকন্দর শ্ৰীহট প্রদেশের ভারপ্রাপ্ত শাসন কর্তা । সাহ জালাল শ্রীহট্টে আসিয়া নানা অমানুষিক ক্রিয়া দ্বারা এক প্রকার বিনা রক্তপাতে গৌড়-গোবিন্দকে পরাভূত করিয়া রাজ্য অধিকার করেন ; কিন্তু রাজ্য নিজে গ্রহণ না করিয়া উহা মুলতান সেকন্দর সাহকে দেন। + সাহ জালাল প্রথমতঃ ১২ জন শিষ্য লইয়া যাত্রা করেন, পথে আসিতে আসিতে র্তাহার শিষ্য বা আউলিয়া (ফকির ) গণের সংখ্যা বৃদ্ধি পাইতে থাকে। উহার মধ্যে প্রধান ৩৬০ জন আউলিয়া দ্বারা শ্রীহট্ট বিজিত হয়। এইজন্ত শ্ৰীহট্টকে “৩৬০ আউলিয়ার মুল্লক” বলে। } প্রবাদ মুখে যখন ইতিহাসের কথা রক্ষিত হয়, তখন এক স্থানের ঘটনা অন্যত্র পুনরভিনীত হইয়াছে বলিয়া দেখা যায়। ইসলামধৰ্ম্ম-প্রচারকগণের এইরূপ ১২ জন সঙ্গী লইয়া আসা ও পরে সে সংখ্যা ৩৬০ হইয়া যাওয়া একটি প্রবাদ। অনেক স্থলে এরূপ হইয়াছে, বিশেষতঃ যশোহর-খুলনায় থাঞ্জালির ইতিহাসে।

  • লক্ষ্মণসেনের সময়ের দরবেশের নাম সাহ জালালউদ্দীন তাত্ৰেঞ্জী। জালালউদ্দীন র্তাহার নাম, তিনি তাব্রিজ সহরে জন্ম গ্রহণ করেন বলিয়৷ তাত্রেী বলিয়া খ্যাত। শ্রীহট্টেং সীহ জালালের নাম সাহ জালাল ইমনি। তিনি ইমন সহর হইতে আগত এবং সাধারণতঃ

मोश् छललि बलिग्न! श्रेjउ । সাহিত্য, ১৩০১, ২ পৃঃ । শ্ৰীহট্টের ইতিবৃত্ত ২য় ভl:২য় খঃ ১১ পৃঃ। Bloch's Archaeological Survey Report, 1903, p. 24. + “Sylhet appears to have been conquered by a small band of Maham madans in the reign of Bengal king Shamsuddin in 1384 A. D. The Supernatural powers of the last Hindu King, Gour Govinda, proved inefiectual against the still more extraordinary powers of the Fakir Shah Jalal, who was the real leader of the invaders”. W. W. Hunter, Statistical Accounts. Assam Vol II. frz gotica FitzHEsta fÈRE HgHS: Hingstą ইলিয়াসকেই বুঝাইতেছে। কারণ হাণ্টার সাহেব দ্বিতীয় সামসুদ্দীনের কথা বলিয়াছেন, তাহার পুত্র সেকন্দর নহেন এবং দ্বিতীয় সামসুদ্দীনকে নিহত করিয়া রাজা গণেশ রাজ্যলাভ করেন। যাহ। হউক চতুর্দশ শতাব্দীর শেষভাগে শ্ৰীহট্ট বিজয় হইয়াছিল, তাহাতে সন্দেহ নাই। শ্ৰীহট্টের ইতিবৃত্ত” প্রণেতা যুক্ত অচ্যুতচরণ চৌধুরী মহাশয় আউলিয়াদিগের নাম দিয়া এই ৩৬ সংখ্যাপূর্ণ করিতে চেষ্টা করিয়াছেন। ২য় ভাগ ২য় খণ্ড ৩৮-৫১ পৃঃ।